আটোয়ারীতে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ছাত্রের চেয়ে ছাত্রী বেশী

আটোয়ারী(পঞ্চগড়) প্রতিনিধি-সারাদেশের ন্যায় পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতেও একযোগে রবিবার ( ৬ নভেম্বর) এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। কেন্দ্র সচিবদের দেয়া তথ্যমতে এবার আটোয়ারীতে মোট ১০০৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪৬৮ জন ছাত্র ও ৫৩৬ জন ছাত্রী। তথ্যমতে সাধারণ পরীক্ষার্থী ৬৯৮ জন, বিএম শাখায় ২৪৫ জন এবং মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী ৬১জন। মির্জা গোলাম হাফিজ ডিগ্রী কলেজ ( কেন্দ্র নং-০১) কেন্দ্রে প্রথম দিনের বাংলা ১ম পত্র পরীক্ষায় ৪০৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১২৮জন ছাত্র ও ২৭৫ জন ছাত্রী। এর মধ্যে ৭জন অনুপস্থিত। এ কেন্দ্রে মানবিক বিভাগে ৩৭১ জন, বাণিজ্য বিভাগে ১৩ জন এবং বিজ্ঞান বিভাগে ১৯জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। এখানে কেন্দ্র সচিব ছিলেন ওই কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফজলে নূর প্রধান। ট্যাগ অফিসার ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ তোবারক হুসেন। একই কলেজের নতুন ভবনে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধিনে বিএম পরীক্ষা কেন্দ্রে ২৪৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২১১ জন ছাত্র ও ৩৪ জন ছাত্রী । এর মধ্যে প্রথম দিনের বাংলা পরীক্ষায় ৩জন অনুপস্থিত ছিল। এখানে কেন্দ্র সচিব ছিলেন বলরামপুর আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম মোস্তফা। ট্যাগ অফিসার ছিলেন সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জাহেদুল ইসলাম। আটোয়ারী আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজ ( কেন্দ্র নং-০২) কেন্দ্রে ২৯৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২০৩ জন ছাত্রী এবং ৯২জন ছাত্র। এর মধ্যে প্রথম পরীক্ষায় ৪জন অনুপস্থিত ছিল। তথ্য মতে এ কেন্দ্রে মানবিক শাখায় ২০৬জন, বাণিজ্য শাখায় ২২ জন ও বিজ্ঞান শাখায় ৬৭জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এখানে কেন্দ্র সচিব ছিলেন ওই কলেজের অধ্যক্ষ এম.এ মান্নান। ট্যাগ অফিসার ছিলেন একাডেমিক সুপারভাইজার মোঃ রেজাউন নবী রাজা। অপরদিকে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধিনে আটোয়ারী টেকনিক্যাল এন্ড বি.এম কলেজ কেন্দ্রে ৬১জন আলিম পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩৭জন ছাত্র ও ২৪ জন ছাত্রী। এর মধ্যে ১৩ জন পরীক্ষার্থী প্রথম দিনের কুরআন মাজিদ পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছিল। এখানে সচিবের দায়িত্বে ছিলেন সাতখামার ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ খাদেমুল ইসলাম। এ কেন্দ্রে ট্যাগ অফিসার ছিলেন ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর মোঃ আব্দুল মান্নান। পরীক্ষা চলাকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মুসফিকুল আলম হালিম পরীক্ষা কেন্দ্রগুলো পর্যবেক্ষণ করেছেন। কেন্দ্র সচিব ও ট্যাগ অফিসারগণ জানান, পরীক্ষা নিরিবিলি, কোলাহল মুক্ত , নকলমুক্ত ও শান্তিপুর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, পরীক্ষা সুশৃঙ্খল ভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য আগেই ব্যাপক মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা করা হয়েছে। তারপরেও কেউ বিশৃঙ্খলা বা আইন-শৃঙ্খলা পরিপন্থি কাজে জড়িত হলে তাৎক্ষনিক তাকে আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।