টাওয়ার হ্যামলেটসের নতুন মেয়র জন বিগস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাঙালি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটসে ‘জালিয়াত’ লুৎফুর রহমান যুগের অবসানের পর ভোটে জিতে নতুন নির্বাহী মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন লেবার পার্টির প্রার্থী জন বিগস। আগের নির্বাচনে ব্যাপক জালিয়াতি ও কারচুপি প্রমাণিত হওয়ায় বৃহস্পতিবার কড়া পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যে সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা এই কাউন্সিল নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয়। শুক্রবার সকালে রিটার্নিং কর্মকর্তা জন বিগসকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। টাওয়ার হ্যামলেটসের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ফলাফল ঘোষণার তথ্য ও ছবিও প্রকাশ করা হয়। ফল প্রকাশের পর স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোরে লন্ডনের এক্সসেল কনফারেন্স সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন মেয়র বলেন, “গত এক বছরের ঘটনাপ্রবাহে আমাদের এই বরোতে যথেষ্ট উত্তেজনা বিভাজন তৈরি হয়েছে। এখন আমাদের সব আবার ঠিকঠাক করতে হবে।” বিগত দিনের ‘অসদাচরণের’ ইতিহাস পেরিয়ে এসে টাওয়ার হ্যামলেটসকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় জানান ৫৮ বছর বয়সী এই লেবার নেতা।
লেবার পার্টির হয়ে লন্ডনের তিন আসন থেকে সম্প্রতি এমপি নির্বাচিত বাংলদেশি সংশোদ্ভূত রুশনারা আলী, টিউলিপ সিদ্দিক ও রূপা হক টাওয়ার হ্যামলেটসের নির্বাচনে লন্ডন অ্যাসেম্বলির সদস্য জন বিগসের পে প্রচারে অংশ নেন।
গত বছর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিতর্কিত বাংলাদেশি লুৎফুর রহমানের কাছে হেরেছিলেন বিগস। ওই ভোটে জালিয়াতির জন্য আদালতের আদেশে মেয়র পদ হারাতে হয় লুৎফুরকে। তার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।
নিজে ভোটে দাঁড়াতে না পেরে লুৎফুর এবার মেয়র পদে সমর্থন দেন রাবিনা খান নামে আরেক বাংলাদেশিকে, যিনি লুৎফুরের সময়ের কাউন্সিলর। নির্বাচনে রাবিনা পরাজিত হয়েছেন প্রায় ৬ হাজার ভোটের ব্যবধানে। টাওয়ার হ্যামলেটসে মোট ১ লাখ ৮৪ হাজার ৫৬৩ ভোটারের মধ্যে মেয়র নির্বাচনে ভোট দেন ৬৯ হাজার ৭৬৩ জন, মোট ৩৭.৭৩ শতাংশ। ব্যালট পেপারে ভোটারদের প্রথম ও দ্বিতীয় পছন্দ উল্লেখ করা সুযোগ ছিল।

সর্বশেষ সংবাদ