বেজন্মা বলেই জামায়াতের পেটে বিএনপি

ঢাকা: বিএনপিকে বেজন্মা আখ্যায়িত করে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, যাদের (বিএনপি) শেকড় নাই আশুগঞ্জের ভাষায় তাদের বলে বেজন্মা। বেজন্মা বলেই দলটি জামায়াতের পেটে ঢুকে পড়েছে। জন্ম ঠিক থাকলে কখনও জামায়াতের পেটে ঢুকে যেতো না।

 
শনিবার দুপুরে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে প্রিন্সিপাল শাহজাহান ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘যুগপূর্তি, শেকড়ের সন্ধানে গ্রন্থের প্রকাশনা এবং গুণীজন সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 
কামরুল বলেন, এখন ওরাই (বিএনপি নেতারা) বলে, আমি না। অনেক দিন আগে আমি বলেছিলাম জামায়াতের পেটে বিএনপি। এখন ওরাই বলে। শেকড় নাই। শেকড় নেই বলেই আজকে তারা ক্রমান্বয়ে মুসলিম লীগে পরিণত হবে। আজকে তাদের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের মধ্যে কথাবার্তায় বোঝা যায় তাদের ভবিষ্যৎ। আগামী নির্বাচনে আগে ভেঙ্গে কয় খণ্ড হবে এর কোনো ঠিক নেই।

 
তিনি বলেন, বিএনপির জন্মের কোনো ইতিহাস নেই। শেকড় নেই, বেজন্মা। রাজনীতি বলেন, সমাজ বলেন সবক্ষেত্রে শেকড় যদি না থাকে এর পরিণতি ভালো হয় না।

 
খাদ্যমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের শেকড় মজবুত বলেই এত ঝড়-ঝাপ্টা হওয়ার পরও আওয়ামী লীগ টিকে আছে। বিশ্বের মোড়লরা আমাদের বিরুদ্ধে। মোড়লরা অনেকেই অনেক কথা বলেন। অনেক প্রেসক্রিপশন দেন। সেই প্রেসক্রিপশন শেখ হাসিনা শুনলে দেশ এগিয়ে যেত না। পদ্মা সেতুতে বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন বন্ধ করার পরও নিজস্ব অর্থায়নে আমরা পদ্মা সেতু করতে পারতাম না।

 
সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, প্রফেসর ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, বিশিষ্ট অভিনেতা ড. ইনামুল হক, জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি মো. শফিকুর রহমান প্রমুখ।