দপ্তরি নিয়োগে এমপিদের ক্ষমতা কেন অবৈধ নয়

জিটিবি নিউজ ডেস্ক ঃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরি কাম প্রহরী পদে লোক নিয়োগে এমপিদের (সংসদ সদস্য) মতা নিয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে দায়ের করা পৃথক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি কাজি রেজা-উল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার এ আদেশ দেন।
রুলে নীতিমালার ৭ (২) অনুচ্ছেদ অনুসারে এমপিদের ক্ষমতা চর্চা কেন সংবিধান পরিপন্থি হবে না এবং এ নীতিমালা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে।এ রুলের পাশাপাশি নরসিংদীর মনোহরদির উপজেলার দু’টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরি নিয়োগ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন আদালত। রিটের বিবাদীরা হচ্ছেন, শিক্ষাসচিব, প্রাথমিক ও গণশিা অধিদফতরের মহাপরিচালক, নরসিংদীর জেলা প্রশাসক, জেলা প্রাথমিক শিা কর্মকর্তা, মনোহরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা শিা কর্মকর্তা এবং জনৈক মো. শাখাওয়াত হোসেন।আদালতে আবেদনের পে ছিলেন, আইনজীবী মো. শামসুল আলম কাঞ্চন।রিট আবেদনে বলা হয়, চলতি বছরের ২৬ জানুয়ারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরি কাম প্রহরী পদে লোক নিয়োগে এমপিদের মতা দিয়ে প্রাথমিক ও গণশিা মন্ত্রণালয় একটি নীতিমালা জারি করে। এ নীতিমালার আলোকে মনোহরদী উপজেলা শিা কর্মকর্তা ৩৫টি স্কুলের জন্য প্রহরী নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি দেন। এ নীতিমালার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আদালতে রিট দায়ের করেন নিয়োগ প্রত্যাশী মনোহরদীর পঞ্চাশকুর গ্রামের মোহাম্মদ উল্লাহ মিঠু ও উরুলিয়া গ্রামের কাউচার মিয়া। পাশাপাশি মনোহরদীর দু’টি স্কুলে নিয়োগ স্থগিত রাখারও আবেদন জানান তারা।আইনজীবী শামসুল আলম কাঞ্চন জানান, নীতিমালা নিয়ে রুল জারি করে হাইকোর্ট মনোহরদীর পঞ্চাশকুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং উরুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিয়োগ স্থগিত করেন।