বরিশাল বেতার শুনতে পায়না দক্ষিনাঞ্চলের শ্রতারা

নিজস্ব সংবাদদাতা : (আমতলী, বরগুনা) : বাংলাদেশ বেতার বরিশাল কেন্দ্রের সম্প্রচারিত সংবাদ, আবহাওয়া বার্তাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান শুনতে পাচ্ছে না দক্ষিনাঞ্চলের শ্রতারা। ধান, নদী, খাল এই তিন-এ বরিশাল। ধান, নদী, খাল সমৃদ্ধি কীর্তনখোলা নদীর তীরে এ অঞ্চলের মানুষের আশা-আকাক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে ১৯৯৯ সালের ১২ জুন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ বেতার বরিশাল কেন্দ্র উদ্বোধন করেন। সকাল ১০.৪৫ মিনিট থেকে বিকেল ৫.১৫ মিনিট পর্যন্ত সম্প্রচার কার্যক্রম চলে আসছে। ১০ কিলোওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন ট্রান্সমিটার দিয়ে হয় বেতারের কার্যক্রম। বরিশাল থেকে পটুয়াখালী, ঝালকাঠী পর্যন্ত কয়েকটি উপজেলায় বেতার শোনা যায়। শ্রতাদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতী অনুযায়ী ৮ ডিসেম্বর ২০১৩ ইং তারিখ ২০ কিলোওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন নতুন ট্রান্সমিটার স্থাপন করা হয় এবং এফ.এম. ১০৫ মেগাহার্টজ ২১ জানুয়ারি ২০১৩ থেকে চালু করা হলেও পটুয়াখালীর গলাচিপা, দশমিনা, মির্জাগঞ্জ, বাউফল, কলাপাড়া, মহিপুর, কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত, বরগুনার আমতলী, বামনা, বেতাগী, পাথরঘাটা, তালতলী উপজেলার শ্রতারা একেবারেই বরিশাল কেন্দ্রের সম্পচারিত আবহাওয়া বার্তা, সংবাদ, সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের উপর অনুষ্ঠানমালাসহ কিছুই শুনতে পাচ্ছেনা। বিশেষ করে দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার সময় আবহাওয়ার পূর্বাভাস, সমুদ্র সংকেত শুনতে পারছে না গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়া জেলেরা। ইউনিসেফ এর সহায়তায় পটুয়াখালী সদর, কলাপাড়া, বরগুনার আমতলীতে বিভিন্ন কাবের কিশোর কিশোরীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। বরিশাল বেতারের আয়োজনে প্রায় দুইশত কিশোর কিশোরীদের শারীরিক মানসিক বিকাশ সাধন, স্যানিটেশন এর উপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ঐ সকল বিষয়ে বরিশাল বেতার নিয়মিত অনুষ্ঠান প্রচার করে আসছে। অথচ দক্ষিনণাঞ্চলের ¯্রােতারা একবারেই বরিশাল বেতারের সম্প্রচারিত অনুষ্ঠান শোনা থেকে বঞ্ছিত হচ্ছে। বরিশাল বেতারের আঞ্চলিক পরিচালক কিশোল রঞ্জন মল্লিক এর সাথে আলাপ করলে তিনি বলেন, বেতারের ৩টি বিভাগ রয়েছে অনুষ্ঠান, বার্তা এবং প্রকৌশল। অনুষ্ঠান ও বার্তা দেখার দায়িত্ব আমার। সম্প্রচার এ কারিগরি সহায়তা কিংবা প্রেরণ করার দায়িত্ব প্রকৌশল বিভাগের। তবে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন জায়গা থেকে শ্রতারা বেতারের অনুষ্ঠানমালা, আবহাওয়া বার্তা, সমুদ্রের বিপদ সংকেত শুনতে পান না মর্মে লিখিত অভিযোগ দিয়ে যাচ্ছেন। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় ইতোমধ্যে বেতারের এফ.এম.ট্রান্সমিটারের কিছু যন্ত্রাংশ পুড়ে যাওয়ায় ¯্রােতারা অনুষ্ঠান শুনতে পারছে না। বেতারে দায়িত্বরত প্রকৌশলী নিত্য প্রকাশ বিশ্বাস বলেন, যান্ত্রিক কিছু ত্রুটি রয়েছে, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানান হয়েছে।