মোশাররফের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

জিটিবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক: লাল মসজিদ হত্যাকান্ড মামলায় শুক্রবার পাকিস্তানের সাবেক সেনাশাসক পারভেজ মোশাররফের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে স্থানীয় এক আদালত। ২০০৭ সালে এক সেনা অভিযানে কয়েকজন সহকারীসহ প্রাণ হারিয়েছিলেন লাল মসজিদের ইমাম আবদুল রশিদ গাজি। পাকিস্তানের ডিস্ট্রিক এবং সেশন জজ কামরান বুশারাত মুফতি শুক্রবার মোশারফের আদালতে হাজির না হওয়ার আবেদন বাতিল করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। একই সঙ্গে পুলিশের প্রতি তাকে আদালতে হাজির করারও নির্দেশ দিয়েছেন ওই বিচারক। এ মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য হয়েছে আগামি ২৪ জুলাই। ৭১ বছরের মোশাররফ বর্তমানে করাচিতে তার মেয়ের বাড়িতে অবস্থান করছেন এবং শারীরিক অসুস্থতার কারণে আদালতে হাজির হতে পারছেন না।লাল মসজিদ মামলায় বলা হয়েছে, ২০০৭ সালে মসজিদে সামরিক অভিযানের নির্দেশ দিয়েছিলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মোশাররফ। সেনা কমান্ডোরা মসজিদে ঢুকে ইমাম আবদুল রশিদ গাজিকে হত্যা করে। এ ঘটনায় ২০১৩ সালে সাবেক এই স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তার পরিবার।সাবেক এই সেনাশাসক ১৯৯৯-২০০৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৮ সালে মতাচ্যূত হওয়ার পর তিনি দুবাইয়ে স্বেচ্ছা নির্বাসনে যান। ৫ বছর স্বেচ্ছা-নির্বাসন শেষে ২০১৩ সালে দেশে ফেরার পর থেকে একের পর এক মামলার সম্মুখীন হতে হয়েছে সাবেক এই সেনাপ্রধানকে। এর মধ্যে রয়েছে ২০০৭ সালে দেশটির প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর হত্যামামলা। এ ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলাও চলছে। এ ছাড়া তার দেশ ছাড়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট। দেশে ফেরার পর ২০১৩ সালে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে অংশ নিলেও বিজয়ী হতে পারেননি মোশাররফ।