ভেজাল ভোজ্যতেল,পাঁচজনের কারাদন্ড

নিজস্ব সংবাদদাতা : বিএসটিআই’র পদ্ধতি অনুসরণ না করে ভোজ্যতেল উৎপাদন, প্যাকেট ও বাজারজাত করার অভিযোগে পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ৬টি কারখানা সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তামিম আল আমিন এসব আদেশ দিয়েছেন। নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানার বিসিক এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কারখানাগুলোতে অভিযান চালায় র‌্যাব। পরে বিএসটিআই এবং জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতও তাদের সঙ্গে যোগ দেয়।র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের সহকারী পরিচালক মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কারখানাগুলোতে তেল উৎপাদনের জন্য বিএসটিআই’র কোনো অনুমোদন নেই। তারা সনাতন পদ্ধতিতে তেল পরিশোধন করে সেগুলো প্যাকেটে নিয়ে লেবেলে লাগিয়ে বিক্রি করছিল। দন্ড পাওয়া পাঁচজনের মধ্যে মিনার সয়াবিন ওয়েলের মালিক শিহাব উদ্দিনকে (৩৮) ৯ মাসের কারাদ- এবং দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।শাহিন সয়াবিন ওয়েলের কর্মচারী মো.আরিফ (২০), আলতাফ হোসেন(২৯), মো. সালাউদ্দিন (২০) এবং মো.মাইনুদ্দিনকে (২৭) ছয় মাসের কারাদ- দেওয়া হয়েছে।সাজা ঘোষণার পর পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান মেজর জাহাঙ্গীর। সিলগালা করা কারখানাগুলোর মধ্যে আছে, মিনার সয়াবিন ওয়েল, শাহিন সয়াবিন ওয়েল, স্টার গোল্ড সয়াবিন ওয়েল, নুর সয়াবিন ওয়েল, নুর মাস্টার ওয়েল এবং এস আমানত সয়াবিন ওয়েল।অভিযানের সময় বারবার খবর দিয়েও মালিক-কর্মচারিকে কাউকে না পেয়ে কারখানাগুলো সিলগালা করা হয়েছে বলে জানান মেজর জাহাঙ্গীর।