চলনবিলে লিচুর বাম্পার ফলন, দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা৷

এ এইচ খোকন চলনবিল প্রতিনিধিঃ চলনবিল এলাকায় এ বছর লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে৷

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এবারে চলনবিলের গুরুদাসপুর, বড়াইগ্রাম, তাড়াশ, চাটমোহর সহ কয়েকটি উপজেলাতেই লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে৷ শতকরা ১৫০-১৭০ টাকা মোজাফ্ফর জাতের এবং শতকরা ২০০ – ২৭০ টাকা খুচরা চায়না থ্রী জাতের  লিচু স্থানীয়  বাজারে বিক্রী হচ্ছে৷

লিচু বিক্রি করে লাখ টাকা আয়ের স্বপ্ন দেখছে লিচু চাষীরা কিন্তু করোনার কারনে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিছিন্ন হওয়ায়  লিচুর দাম নিয়ে সংশয় কাজ করছে চাষীদের মধ্যে। তাড়াশ  উপজেলার নওখাদা গ্রামের  লিচু ব্যবসায়ী আহাম্মদ আলী জানান, এবারে তিনি সাত বিঘা জমির উপর লিচু বাগান করেছেন। ফলন ভালো হলেও শীলা বৃষ্টির কারনে কিছু  লিচুতে  ফাটল ধরেছে। তবে আশা করছে এবারে দাম ঠিক থাকলে লাভবান হবেন৷

আনন্দনগর এলাকার লিচু ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বলেন, বহু বছর আগে থেকেই আমরা এই লিচু বাগান করে আসছি। প্রায় ২ একরের মতো জমিতে আমরা লিচু চাষ করেছি। এবারে আমাদের বাগানে লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। এখানে লেবার খরচ,গাছে বীজ দেওয়াসহ আরো বিভিন্ন খরচ বাবদ ২ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। যদিও শীলা বৃষ্টির ফলে একটু ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হতে হয়েছে এর পরেও যদি বাজারে একটু ভালো দাম পাই তাহলে অনেকটা লাভবান হবো বলে আমি আশা করছি। উল্লেখ্য, এ অঞ্চল থেকে ঢাকা সহ সারাদেশে লিচু আরৎ এর মাধ্যমে পাইকারী  বিক্রী করা হয়ে থাকে৷