বগুড়া জেলা প্রশাসকের নিকট বাংলাদেশ এলপি গ্যাস সোসাইটি’র স্মারকলিপি প্রদান

বগুড়ায় এল পি জি ডিপো চালু সহ বিস্ফোরক লাইন্সেস বিহীন অবৈধ এল পি জি ব্যবসায়ীদের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে বগুড়া জেলা প্রশাসক জিয়াউল হকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়। সোমবার বিকালে বাংলাদেশ এলপি গ্যাস সোসাইটির নেতাকর্মীরা স্মারকলিপিটি জেলা প্রশাসকের হাতে পৌছে দেন সংগঠনের সভাপতি মো. মঞ্জুরুল হক মঞ্জু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসলাম খাঁন ও মুরাদ মিঞা।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন, উত্তরাঞ্চলের ভোক্তা ও ডিলারদের সুবিধার জন্য ২০০১ সালে ২৫ডিসেম্বর তৎকালীন চেয়ারম্যান সর্বপ্রথম বগুড়া জেলার বারবাকপুরে এল পি জি ডিপো উদ্বোধন করেন। এরপর সেখান থেকে বগুড়ার ফুলদিঘীতে ডিপোটি স্থানান্তর করে। পরবর্তীতে ২০০৭ সালের আগস্ট মাসে বনানীর সুজাবাদ এলাকায় পূনরায় এল পি জি ডিপো চালু করে উত্তরাঞ্চলের ডিলারদের মাঝে গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক করেন। ২০০৭ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত উত্তরাঞ্চলের ১৪টি জেলায় প্রায় ৭৫০ জন ডিলারদের মাঝে এল পি জি সরবরাহ করেন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি) এর নিয়ন্ত্রনাধীন কোম্পানী সমূহ পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা অয়েল কোম্পানী। দুঃখ জনক হলেও সত্য যে, ত্রুটিপূর্ন সিলিন্ডারের কারনে গত ২০ আগস্ট ২০১৬ সালে সুজাবাদ এলাকায় অবস্থিত এল পি জি ডিপোতে অগ্নিপাতের সূত্রপাত ঘটে। যার কারণে ডিপোর সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। দীর্ঘদিন বগুড়ায় ডিপো চালু না হওয়ায় উত্তরাঞ্চলের ডিলাররা চরম হতাশায় ভূগছেন।
আমরা বাংলাদেশ এলপি গ্যাস সোসাইটি’র পক্ষ থেকে বগুড়া জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি) চেয়ারম্যান মহোদয়ের কাছে বগুড়ায় পূনরায় এল পি জি ডিপো দ্রুত চালু করার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি।

সর্বশেষ সংবাদ