‘ফুলবাড়ি চুক্তি’ বাস্তবায়নের দাবিতে গাইবান্ধায় সমাবেশ

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ ‘ফুলবাড়ি চুক্তি’ দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সমাবেশ হয়েছে গাইবান্ধা জেলা শহরে। ফুলবাড়ি দিবস উপলক্ষে বুধবার (২৬ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে শহরের পৌর শহিদ মিনারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির গাইবান্ধা জেলা শাখার আয়োজনে এ কর্মসূচিতে গাইবান্ধার সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।
এতে বক্তারা বলেন, চারদলীয় জোট সরকারের আমলে ফুলবাড়ি উন্মুক্ত কয়লা খনির বিরুদ্ধে গণআন্দোলনে আমিন, তরিকুল ও সালেকিনের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে করা চুক্তি বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারও বাস্তবায়ন করছে না। এটি মেনে নেয়া যায় না। দেশকে গণতান্ত্রিক হিসেবে গড়ে তুলতে জাতীয় সম্পদ রক্ষা ও প্রাণ-প্রকৃতি পরিবেশ রক্ষার কোনো বিকল্প নেই। অবিলম্বে জাতীয় স্বার্থে প্রস্তাবিত দাবিগুলো মেনে নেয়ার আহ্বান জানান বক্তারা।
তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি গাইবান্ধার আহ্বায়ক শাহাদৎ হোসেন লাকুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় কমিটির গাইবান্ধার সদস্য সচিব আবু রায়হান শফিউল্যাহ, বাসদ মার্কসবাদী জেলা পাঠচক্র ফোরামের সদস্য সচিব মনজুর আলম মিঠু, সিপিবি জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য তপন কুমার বর্মন, বাসদ জেলা সমন্বয়ক গোলাম রব্বানী, বাসদ মার্কসবাদী সদস্য নীলুফার জেসমিন শিল্পী, জেলা জেএসডি সভাপতি লাসেন খান রিন্টু, এ্যাড. মোস্তফা মনিরুজ্জামান, ওয়াকার্স পার্টি জেলা সম্পাদক রেবতী বর্মণ প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, ২০০৬ সালে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে হত্যাকান্ড সংগঠিত হবার পর ওই এলাকার মানুষ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। আন্দোলনের এক পর্যায়ে তৎকালীন বিএনপি সরকার আন্দোলনকারীদের সাথে ৬ দফা চুক্তি করতে বাধ্য হয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় ওই সময় বিএনপি সরকার যেমন এই ৬ দফা চুক্তি বাস্তবায়ন করেনি, তেমনি দীর্ঘ দুই মেয়াদে আওয়ামীল লীগ সরকারও এই দাবি উপক্ষো করে চলেছে।
বক্তারা অবিলন্বে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুাৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সাথে সম্পাদিত ৬ দফা চুক্তি বাস্তবায়নের দাবি জানান। সমাবেশ শেষে পৌর শহিদ মিনারে ফুলবাড়ি হত্যাকান্ডে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।