ঝিনাইদহে সাবেক সেনা সদস্য ও পাউবোর কর্মচারীসহ করোনায় ৩ জনের মৃত্যু, মোট মৃত্যু ২৬ জন

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে মৃত্যুর মিছিলে যাগ হলে ২৬ জনের নাম। করোনায় আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিরা হলেন ঝিনাইদহ শহরের ব্যাপারীপাড়া এলাকার মাসুদুর রহমানের ছেলে মাগৃরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মচারী মোর্শেদ বিন মাসুদ সুইট, মহেশপুর উপজেলার হাবাসপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে জাহাঙ্গীর কবীর ও হরিণাকুন্ডু উপজেলার সড়াবাড়িয়া গ্রামের ফয়েজ উদ্দীনের ছেলে সাবেক সেনা সদস্য পান্টু বিশ্বাস। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আব্দুল হামিদ খান এ তথ্য জানান। প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ২৬ আগষ্ট মোর্শেদ বিন মাসুদ সুইট করোনায় উপসর্গ নিয়ে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়। মোর্শেদ বিন মাসুদ সুইট দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বিভিন্ন সমাজসেবা সংগঠন ও দানশীল ব্যক্তিদের সহায়তায় সুইটের চিকিৎসার জন্য প্রায় ২২ লাখ ৪০ হাজার টাকা প্রদান করেন। এদিকে মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়িয়া ইউনিয়নের হাবাসপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর কবীর ৩১ জুলাই করোনা উপসর্গ নিয়ে মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি হন। গত ৪ আগষ্ট তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পরদিন তাকে ঝিনাইদহ অস্থায়ী করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে মারা যান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয় হরিণাকুন্ডু উপজেলার সড়াবাড়িয়া গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য পান্টু বিশ্বাস করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথমে ঝিনাইদহ ও পরে বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। বৃহস্পতিবার বিকালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। হরিণাকুন্ডু উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা সাবেক সেনা সদস্য পান্টু বিশ্বাসের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। দুই জনোর লাশ ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের লাশ দাফন কমিটির তত্বাবধানে স্থানীয় পৌর গোরস্থানে দাফন করা হয়। এই নিয়ে করোনা উপসর্গ ও করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঝিনাইদহে ৪৭ জনের লাশ দাফন করলো ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের গঠিত লাশ দাফন কমিটি।