গাবতলীতে গ্রামীণ ফোন অফিস থেকে নগদ অর্থসহ ১৩লাখ টাকা মূল্যের স্ক্যাচকার্ড চুরি

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার গাবতলীতে গ্রামীণ ফোনের সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের দরজার হ্যাজবল ভেঙে নগদ অর্থসহ সাড়ে ১৩লাখ টাকা মূল্যের মিনিট কার্ড, নেট কার্ড ও স্ক্যাচকার্ড চুরি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে অথবা শুক্রবারের কোন এক সময় গাবতলী মডেল থানার পশ্চিমপার্শ্বে রায়হান কমপ্লেক্সের ৩য়তলায় গ্রামীন ফোনের গাবতলী এমএইচএস ইন্টারন্যাশনাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানে দুর্ধর্ষ এই চুরির ঘটনা ঘটে। এতে করে সাধারণ ব্যবসায়ী মহলের মধ্যে চরম চোর আতংক বিরাজ করছে। রাতে থানা পুলিশের টহল ব্যবস্থা ঝিমিয়ে পড়ায় থানার সন্নিকটে এমন দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটছে বলে একাধিক সচেতন মহল দাবী করছেন।
জানা গেছে, গাবতলী থানার তিনমাথার মোড়ের দক্ষিণধারে রায়হান কমপ্লেক্সের ৩য়তলায় গ্রামীন ফোনের এমএইচএস ইন্টারন্যাশনাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন থেকে ব্যবসা করে আসছে। এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে ১৬জন কর্মী গাবতলী এবং সারিয়াকান্দী উপজেলার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মিনিট কার্ড ও স্ক্যাচকার্ড সরবরাহ করে থাকে। গ্রামীণ ফোন লিঃ গাবতলীর পরিবেশক হাবীব রেজুয়ান কর্মীদের সাথে ব্যবসায়িক হিসাব-নিকাশ শেষে গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় অফিস বন্ধ করে বাসায় চলে যান। শনিবার সকাল ৮টায় অফিসে এসে দেখেন ষ্টীলের দরজার হ্যাজবল ভাঙ্গা। এরপর প্রতিষ্ঠানে ভিতরে ঢুকে দেখতে পান নগদ ১লাখ ২২হাজার টাকা এবং ১২লাখ ৩৪হাজার টাকা মূল্যের মিনিট কার্ড, নেট কার্ড ও স্ক্যাচকার্ড চুরি হয়ে গেছে। এ ঘটনায় গ্রামীণ ফোন লিঃ গাবতলীর পরিবেশক হাবীব রেজুয়ান বাদী হয়ে শনিবার মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ ওই অফিসের ৩জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় এনেছেন। এ ব্যাপারে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি মোঃ আনোয়ার হোসেন স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে পৌর সদরের থানার তিনমাথার মোড়ে মৌসুমী মোবাইল ফোন সেন্টার, আল-আমিন কমপ্লেক্সের সোনার দোকানে এবং থানা মার্কেটের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরি যাওয়া অধিকাংশ মালামালই আজ পর্যন্ত উদ্ধার হয়নি।

সর্বশেষ সংবাদ