ধুনটে সরুগ্রামে বিষক্রিয়ার হাঁসের মৃত্যু, থানায় অভিযোগ

কারিমুল হাসান লিখন, ধুনটঃ বগুড়ার ধুনটে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বিষ প্রয়োগের মাধ্যমে নুর মোহাম্মাদ নামের এক কৃষকের ৪০ টি হাঁস নিধনের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার বিকাল ৪টায় উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের সরুগ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক নুর মোহাম্মাদ ওই গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদ আলীর ছেলে। এঘটনায় শনিবার সন্ধ্যায় ধুনট থানায় ৩জনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সরুগ্রামের মৃত খতবর আলী মন্ডলের ছেলে খৈয়ব আলী মন্ডলের সাথে একই গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদ আলীর ছেলে নুর মোহাম্মাদ আলীর বিরোধ চলে আসছিলো। এমতবস্থায় গত ২৯ আগষ্ট ২০২০ শনিবার সকাল অনুমান ৭টায় নুর মোহাম্মাদ তার বাড়ি সংলগ্স নয়া র্মোচা নামক বিলে আহার করার জন্য ৪০ টি হাঁস ছেড়ে দেয়। খৈয়ব আলী মন্ডল পুর্ব ঘোষনা ছাড়াই নয়া র্মোচা বিল সংলগ্ন তার নিজ ধানী জমিতে বিষ প্রয়োগ করে। বিকাল ৪টার সময় হাঁসগুলো খৈয়ব আলী মন্ডলের জমিতে গেলে বিষক্রিয়ায় মারা যায়।

অভিযোগ কারী নুর মোহাম্মাদ জানান, খৈয়ব আলী মন্ডল আমার ক্ষতি সাধন করার জন্য কাউকে কিছু না জানিয়ে জমিতে বিষ প্রয়োগ করে আমার হাঁস গুলো মেরে প্রায় ২০ হাজার টাকা ক্ষতি করেছে। কাউকে কিছু না জানিয়ে জমিতে বিষ প্রয়োগ করার কারন জানতে আমি খৈয়ব আলী মন্ডলের বাড়িতে যাই। কারন জানতে চাওয়ায় আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করেছে এবং আমাকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে বেড় করে দেয়।

নিজ জমিতে বিষ প্রয়োগকারী খৈয়ব আলী জানান, কারো ক্ষতি বা হাঁস নিধনের জন্য নয়,আমি আমার নিজ ধানের জমি হতে পোকা দমনের জন্য বিষ প্রয়োগ করেছি। বিষ প্রয়োগের সময় জমির আশেপাশে কেউ না থাকায় কাউকে সতর্ক করতে পারি নাই। অসাবধানতা বসত নুর মোহাম্মাদের হাঁস গুলি আমার জমিতে প্রবেশ করে আহার করতে থাকে। ফলে তার হাঁস গুলো বিষক্রিয়ায় মারা যায়। এ ঘটনায় তারা আমার ছেলের পথ রোধ করে চর থাপ্পর মেরেছে। অসাবধানতা বসত তার যে ক্ষতি হয়েছে সে বিষয় নিয়ে স্থানীয় ভাবে বসে একটা সমাধান করা সম্ভব হতো। সে স্থানীয়ভাবে না বসে থানায় গিয়ে আমিসহ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছে।

ধুনট থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ