সাপাহারে রাস্তার মৃত গাছ টেন্ডার নিয়ে জিবীত গাছ কেটে সাবাড়

প্রদীপ সাহা,সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সরকারী রাস্তায় রোপীত মরা গাছ টেন্ডার নিয়ে রাস্তার জিবীত গাছ কেটে সাবাড় করেছে ঠিকাদার।
জানা গেছে সাপাহার উপজেলার মফস্বল গ্রামীন পাকা রাস্তা কোচকুড়লিয়া মোড় হতে নিশ্চিন্তপুর মোড় পর্যন্ত প্রায় ৩কিলোমিটার রাস্তার উভয় পর্শ্বে অবস্থিত আকাশমণি, শিশু সহ বিভিন্ন ধরণের ১৫৬টি মৃত গাছ ১লক্ষ ১৭হাজার ১শ টাকায় সাপাহার বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক টেন্ডার দিলে সাপাহারে অবস্থিত উত্তরা স”মিল এর সত্বাধিকারী মো: আবুল কালাম আজাদ শুধু মৃত গাছ গুলিকে কেটে নেয়ার জন্য টেন্ডার পায়।
২ সেপ্টেম্বর বুধবার হতে শুরু হয় ওই ঠিকাদারের গাছ কাটা,কিন্তু চতুর ঠিকাদার আবুল কালাম আজাদ তার কর্মচারীদের কে দিয়ে মরা গাছের পাশা পাশী প্রায় ১০টি জিবীত গাছ কেটে ফেলে। মরা গাছের পাশা পাশী জিবীত গাছ কাটতে দেখে এলাকার লোকজনের সন্দেহ হয়। তারা বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে স্থানীয় থানায় সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে ঘটনা স্থলে পৌঁছে ওই ঠিকাদারকে আটক করেছে পুলিশ।
এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় সাপাহার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আল মাহমুদ এর সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বিকার করেন।
এ বিষয়ে সাপাহার বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষে সহকারী প্রকৌশলী রেজাউল ইসলাম এর সাথে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং বলেন যে আমরা তাকে শুধু মৃত গাছ কাটার টেন্ডার দিয়েছি। ঠিকাদারের সুবিধার্থে প্রতিটি গাছে রং দিয়ে নাম্বারিং করা হয়েছে অথচ সে মৃত গাছের পাশা পাশী জীবিত গাছও কেটেছে। রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত বরেন্দ্র উন্নয় কর্র্র্তৃপক্ষের ঠিকাদারের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

সর্বশেষ সংবাদ