পলাশবাড়ীসহ গাইবান্ধার সাত উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় চারজন করে আনসার মোতায়েন

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ পলাশবাড়ী উপজেলাসহ গাইবান্ধা জেলার সাত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের অধিকতর নিরাপত্তায় আপাততঃ চারজন করে আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুর থেকেই মোতায়েন প্রক্রিয়া অব্যাহত ছিল।
নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যরা ইউএনও’র সরকারি বাসভবন ছাড়াও সম্ভাব্য গোটা প্রশাসন কঠোর নজরদারিতে রাখবেন। রোববার এ সংখ্যা বাড়িয়ে দশজনে উত্তীর্ণ করা হবে বলে সূত্র জানায়।
নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা দানের উদ্দেশ্যেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী গাইবান্ধা জেলা সহকারি কমান্ডার মো. তৌহিদুজ্জামান।
তিনি জানান, উত্তরাঞ্চলের প্রত্যেক উপজেলার ন্যায় গাইবান্ধার প্রতিটি উপজেলায় রোববার থেকে দশজন করে সশস্ত্র অঙ্গীভূত আনসার সদস্য মোতায়েনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্দেশনার অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই একজন প্লাটুন (পিসি)ও তিনজন আনসার সদস্য চারজন করে সাত উপজেলায় মোট ২৮ জন আনসার দায়িত্ব পালন করছেন। রোববার থেকে অস্ত্র-গুলির নিরাপত্তা পূর্বক হেডকোয়ার্টার এবং ইউএনওদের সা থে মতবিনিময় আলোচনা ও গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক একজন (পিসি)একজন (এপিসি) এবং আটজন আনসারসহ মোট ১০ জন আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে বলেও তিনি জানান।
পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান নয়ন বলেন নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারি বাসভবন প্রধান ফটক চত্বর জুড়ে চারজন আনসার তাদের দায়ীত্বপালন শুরু করেছেন। দায়িত্বরত আনসার সদস্য মো. সবুর হোসেন জানান, বাসভবন ছাড়াও গোটা প্রশাসন চত্বর জুড়েই তাদের তীক্ষè নজরদারি জোরদার থাকবে। বাসভবন ছাড়াও কাছাকাছি-পাশাপাশি কেউ কিংবা কারো পদচারনা ঘটলে তাদের নাম-পরিচয় ও ঠিকানা জানাসহ আগমনের কারণ সম্পর্কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে।