বিপজ্জনক তালিকার প্রথম সারিতে বলিউডের অভিনেত্রীরা

ম্যাকাফির সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। সমীক্ষায় বলা হয়েছে অভিনেত্রী তাব্বু, তাপসী পান্নু, আনুশকা শর্মাকে ভারতের সবচেয়ে ‘বিপজ্জনক তারকা’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

বাস্তব জীবনে সুরক্ষা যেমন জরুরি, তেমনই ‘ভার্চৃয়াল’ জগতেও নিরাপত্তার গুরুত্ব অনিবার্য। আমাদের চারপাশে কোথায়, কীভাবে বিপদ লুকিয়ে রয়েছে, তা কেউ বলতে পারে না। আর এই বিপদ তারকাদের সূত্র ধরেও আসতে পারে বলা ওই সমীক্ষায় বলা হয়েছে।

সাইবার সুরক্ষা প্রদান করা সংস্থা ম্যাকাফি সম্প্রতি এই সমীক্ষাটি করেছে। তাদের এই সমীক্ষায় ‘বিপজ্জনক তারকা’ হিসেবে সবচেয়ে উপরে নাম রয়েছে ফুটবল তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তাব্বু। তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানে তাপসী পান্নু এবং আনুশকা শর্মা।

সমীক্ষায় আরও বলা হয়েছে, ‘বিপজ্জনক তারকা’ তালিকায় সোনাক্ষী সিনার নাম পঞ্চম স্থানে। ষষ্ঠ স্থানে আছেন সারা আলি খান। আর বলিউড বাদশা শাহরুখ খান রয়েছেন দশম স্থানে। তার আগে অর্থাৎ নবম স্থানে রয়েছেন হিন্দি টেলিভিশন তারকা দিব্যাঙ্কা ত্রিপাঠি দাহিয়া।

ভারতে এই জরিপ সংস্থার দায়িত্বে থাকা ভেঙ্কট কৃষ্ণাপুর জানান, সাইবার অপরাধীরা সাধারণত জনপ্রিয় সিনেমা, টিভি শো, খেলার ভিডিও কিংবা তারকাদের ফাঁস হয়ে যাওয়া ভিডিওর সন্ধানে থাকেন। যখনই ভার্চুয়াল জগতের কোনো নাগরিক বিনামূল্যে এই সমস্ত তথ্য পাওয়ার চেষ্টা করেন, তখনই নিজেদের সাইবার সুরক্ষাকে বিপদের মুখে ঠেলে দেন। ফলে হ্যাকারদের কাছে তাকে অনেক ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়ে যায়।

নেট দুনিয়ায় এই সমস্ত তারকাদের সিনেমা, পোস্ট, লিকড ভিডিওর খোঁজ খুবই বেশি পরিমাণে হয়ে থাকে, যাকে টোপ হিসেবে সাইবার অপরাধীরা ব্যবহার করে। বেশির ভাগ সার্চই অপরিচিত আইডি থেকে হয়ে থাকে বলে জানান ভেঙ্কট। আর সেই ভিত্তিতেই এই সমীক্ষাটি করা হয়। যার প্রথমসারিতে বেশির ভাগ নারী তারকার নাম উঠে এসেছে।