রাজশাহীর জনপ্রিয় এমপি ফারুক চৌধুরীর জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে মরিয়া ভুয়া স্টার

সারোয়ার হোসেন, রাজশাহীঃ উত্তরবঙ্গের মধ্যে আলোচিত সংসদীয় আসন রাজশাহী-১(তানোর-গোদাগাড়ী)। বর্তমানে আসনটির সংসদ সদস্য পর পর তিন বারের সফল এমপি ও সাবেক রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী শহীদ পরিবারের সন্তান জাতীয় চার নেতার এক নেতা এএইচ এম কামারুজ্জামান হেনার সুযোগ্য ভাগ্নে ওমর ফারুক চৌধুরী।
এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাত ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হন। এবং তার রাজনীতির প্রতিফলন দেখে তাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রথমে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পদ দেন। পরবর্তীতে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতির মাঠ চাঙ্গা দেখে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীকে পরপর দুইবার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।
যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী কে মনোনয়ন দিয়ে এমপি বানাচ্ছেন। আর সেখানে এমপির বিরোধিতা করতে গিয়ে সয়ং আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে কিছু আওয়ামী লীগের ভিতরে ঘাপটি মেরে থাকা জামাত বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নকারী।
সূত্রে জানা গেছে, তানোর-গোদাগাড়ী আওয়ামী লীগের কিছু স্বার্থ লোভী নেতা পদপদবী হারিয়ে জেলার বাদ পড়া নেতার সাথে হাত মিলিয়ে জামাত বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য রাজনীতির মাঠে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে তথা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে তারা।
কথায় আছে ঘরের শত্রু ডিভিশন। ঠিক তেমনি আওয়ামী লীগ বিরোধী বগি নেতারা একগ্রুপ হয়ে প্রকাশে মাঠে না নেমে অর্থের বিনিময়ে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভিন্ন পেপার পত্রিকা ও টিভিতে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন অপপ্রচার চালাচ্ছে তারা। যার ফলে জনপ্রিয় এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে এমন জঘন্য মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন অপপ্রচারের জন্য উল্টো বগি গ্রুপকেই ছি ছেঁকার দিচ্ছে তানোর-গোদাগাড়ীর জনসাধারণ। অন্যদিকে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরোধিতা করতে গিয়ে আওয়ামী লীগের বিরোধিতা করাই চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে তৃণমূল নেতাকর্মী সমর্থকদের মধ্যে। এতে করে যেকোন সময় ওইসব বগি স্টারদের গণধাওয়া দিয়ে গণপিটুনি দিতে পারে বলেও গুঞ্জন বইছে।