হ্যাকারদের লক্ষ্যবস্তু করোনার ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান

মার্কিন টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট দাবি করেছে, রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার সরকারি মদদপুষ্ট হ্যাকাররা বিশ্বের প্রথম সারির কিছু ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি এবং করোনার ভ্যাকসিন গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে মূল্যবান তথ্য হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। খবর- খালিজ টাইমস।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) এক ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফট এ তথ্য জানায়। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে হ্যাকারদের এমন চেষ্টা সফল হয়নি। কিন্তু কথিত ওই সাইবার হামলায় ঠিক কতখানি ক্ষতি হয়েছে বা কী পরিমাণ তথ্য হ্যাকারদের হাতে পৌঁছেছে সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

প্রসঙ্গত, চীনা হ্যাকাররা ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে গত জুলাইয়ে দাবি করেছিল যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

মাইক্রোসফট বলছে, হ্যাকারদের মূল লক্ষ্যবস্তু হলো কানাডা, ফ্রান্স, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের সেসব প্রতিষ্ঠান যারা ‘সরাসরি কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন প্রস্তুতের কাজে নিয়োজিত’। সাইবার হামলার ঝুঁকিতে থাকা প্রতিষ্ঠাগুলোর নাম উল্লেখ না করলেও বলা হচ্ছে, তারা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে রুশ সেনাবাহিনীর হয়ে কাজ করা হ্যাকার গ্রুপ ‘ফ্যান্সি বিয়ার’ ও উত্তর কোরিয়ার লাজারুস গ্রুপের দিকে। এই দুটি হ্যাকার গ্রুপ ছাড়া ‘সেরিয়াম’ নামে আরও একদল হ্যাকার এই কাজে জড়িত বলে জানিয়েছে মাইক্রোসফট।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, চাকরির নিয়োগদাতা হিসেবে হ্যাকিংয়ের ফাঁদ পেতেছিল রুশ হ্যাকাররা। আর সেরিয়াম চেষ্টা করেছিল ফিশিংয়ের মাধ্যমে ইমেইল হ্যাক করতে। ফার্মাসিউটিক্যালসগুলোর কর্মচারী ছাড়াও তারা চেষ্টা করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মীদের অনলাইন অ্যাকাউন্ট হ্যাক করতে।

 

সর্বশেষ সংবাদ