ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা, ৬ জন গ্রেপ্তার

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গাদের অন্তর্ভুক্তির অভিযোগে কথিত মা-বাবা ও দালালসহ ৩৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু জাফর ছালেহ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রোববার (৩ জানুয়ারি) নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার একাধিক স্থানে অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোমবার (০৪ জানুয়ারি) তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউপির তুমব্রু এলাকার বাসিন্দা মহিউদ্দিন চৌধুরী (২৮), ক্যাম্প পাড়ার আবছার কামাল (৪২), রেজু আমতলী পাড়ার হামিদ হোছেন (২৭), রেজু আমতলী পাড়ার মোহাম্মদ রশিদ (২৬), রেজু আমতলী পাড়ার নুর আলম (২৫) ও আলী হোছন (৩০)।

সোমবার (০৪ জানুয়ারি) সকালে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন জানান, মিথ্যা তথ্য দিয়ে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তি হওয়া ও রোহিঙ্গাদের সহযোগিতার অভিযোগে কথিত মা-বাবা পরিচয়দানকারী ব্যক্তি এবং দালাল চক্রসহ ৩৩ জনের নামে মামলা হয়েছে।

ওসি জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা আবু জাফর ছালেহ বাদী হয়ে  ৪২০/৩৪ ধারায় পেনাল কোড তৎসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ এর ২৪ধারা তৎসহ ভোটার তালিকা আইন, ২০০৯ এর ১৮ ধারা তৎসহ জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন আইন, ২০১০ এর ১৪ধারায় গত ২০২০ সালের ৩১  ডিসেম্বর মামলা দায়ের করেন তিনি।

মামলার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্যদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানের লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গারা ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়ে আসছে বলে অভিযোগ আছে।