স্বাধীনভাবে ভোট প্রয়োগের ইচ্ছাকে ধ্বংস করেছে আওয়ামীলীগ-সাবেক এমপি লালু

প্রেস রিলিজ: বগুড়ায় বিএনপি কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন ও দলের নেতা-কর্মীদের কালো ব্যাজ ধারণ। বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল রাজনৈতিক দল নির্বাচন বর্জনের পরেও জনগণের দাবিকে উপেক্ষা করে একতরফা ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের কলঙ্কিত অধ্যায়কে ঘৃণার সাথে স্মরণ করে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে বগুড়া জেলা বিএনপি আয়োজিত মঙ্গলবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে সামনে কালো পতাকা উত্তোলন ও দলের নেতা-কর্মীদের কালো ব্যাজ পড়িয়ে দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু। এসময় তিনি বলেন, নির্বাচনের আগেই সরকার গঠনের লজ্জাস্কর ঘটনা কেবল আওয়ামীলীগের দ্বারাই সম্ভব। বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির একতরফা ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছিলো আওয়ামীলীগ। স্বাধীনভাবে ভোট প্রয়োগের ইচ্ছাকে ধ্বংস করেছে আওয়ামীলীগ। এর মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে স্বাধীনতা এবং গণতন্ত্রকে। সাবেক এমপি লালু আরো বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ৭৩ সালের ৭ মার্চের জাতীয় নির্বাচনে নিজেদের কলঙ্কিত রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেছে। স্বাধীনতা অর্জনের মাত্র সোয়া এক বছরের মাথায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনেও তারা জনগণের উপর ভরসা রাখতে পারেনি। ৩০০ আসনের মাঝে তারা ২৯৩ আসন নিয়েছিলো। মাত্র ৭টি আসন দিয়েছিলো বিরোধী দলকে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর থেকে সব নির্বাচনই হয়েছে একতরফা। যেখানে ভোট দিয়েছে মৃত ব্যক্তি এবং গায়েবি লোকেরা। কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ ধারণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আসন্ন বগুড়া পৌর সভা নির্বাচনে বিএনপির মনোনিত মেয়র প্রার্থী ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল করিম বাদশা, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, এম আর ইসলাম স্বাধীন, কেএম খায়রুল বাশার, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, সহিদ উন নবী সালাম, মনিরুজ্জামান মনির, বগুড়া জেলা যুবদলের আহ্বায়ক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, যুগ্ম আহবায়ক সরকার মকুল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যানসহ প্রমুখ।