বগুড়ায় ব্যাংক ডাকাতির চেষ্টা, এসিড নিক্ষেপে ও ছুরিকাঘাতে দুই আনসার সদস্য আহত

স্টাফ রিপোর্টার:বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সাবেকপাড়া রুপালী ব্যাংক শাখায় ডাকাতির চেষ্টা। ডাকাত দলের এ্যাসিড নিক্ষেপে ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত এক আনসার সদস্য দগ্ধ ও অপর আনসার সদস্য ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে।গতকাল মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তবে ডাকাত দল ডাকাতি করতে ব্যর্থ হওয়ায় কোন কিছু খোয়া যায়নি বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার দিলীপ কুমার সাহা জানান, গাবতলী উপজেলার পীরগাছা বাজারে একটি ভাড়া বাসার দোতলায় রুপালী ব্যাংক সাবেক পাড়া শাখার কার্যক্রম পরিচালিত হয়। সোমবার ব্যাংকের কার্যক্রম শেষে কর্মকর্তা কর্মচারীগণ চলে যান। রাতে আনসার সদস্য মাসুদ রানা ও হাবিবুর রহমান নিরাপত্তার জন্য ব্যাংকের ভিতরে অবস্থান করেন। ভোর রাত সাড়ে ৫ টার দিকে মুখোশ (পিপি) পরিহিত কয়েকজন দুর্বৃত্ত ছাদের সিঁড়ি ঘরের তালা কেটে বিল্ডিং-এ প্রবেশ করে। এরপর তারা ব্যাংকের প্রবেশ পথের কলাপসিবল গেটের তালা কেটে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় নিরাপত্তায় নিয়োজিত দুইজন আনসার সদস্য প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে ডাকাত দলের সদস্যরা আনসার সদস্য হাবিবুরকে এ্যাসিড নিক্ষেপ করে ও মাসুদ রানাকে হাত বেধেঁ ছুরিকাঘাত হাতে ছুরিকাঘাত করে। মাসুদ রানার দাবি সে একজন ডাকাতকে ছুরিকাঘাত করেছে। এ পর্যায়ে আনসারসদস্যদের চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।পরে স্থানীয় লোকজন দুইজন আনসার সদস্যকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।রুপালী ব্যাংক সাবেক পাড়া শাখার ম্যানেজার মোতাহার হোসেন জানান, ডাকাত দলের সদস্যরা ইলেকট্রিক কাটার মেশিন দিয়ে তালা ও গ্রিল কেটে ভিতরে প্রবেশ করে ব্যাংকের নিরাপত্তা কর্মী আনসার সদস্যদের ওপর এসিড় নিক্ষেপ ও ছরিকাঘাত করে ভোল্ট ভাঙার চেষ্টা করে।গাবতলীর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাবিনা ইয়াসমিন জানান, ব্যাংকে সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে মুখোশ পড়া দুইজন দুর্বৃত্ত ব্যাংকের প্রবেশ করেছিল। ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যদের ছুরিকাঘাতে দুর্বৃত্তদের একজন আহত হয়ে ছাদের সিঁড়ি ঘর দিয়ে পালিয়ে গেছে।বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞাসহ ব্যাংকের উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।