বগুড়ায় পেশাজীবি গাড়ী চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমুলক প্রশিক্ষন কর্মশালা

বগুড়ায় ২দিন ব্যাপি পেশাজীবি গাড়ী চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার সকালে শহরের তেলীপুকুর মোটর শ্রমিক ড্রাইভিং স্কুলে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি বগুড়া সার্কেল আয়োজনে এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এই প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয়।
“চালালে গাড়ী সাবধানে বাঁচবে সবাই প্রানে” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ২০০ জন চালকদের মাঝে প্রশিক্ষন দেয়া হয়।
পেশাজীবী গাড়ী চালকদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিআরটিএ বগুড়া বরাবরই এই প্রশিক্ষনের আয়োজন করে থাকে।
তারই ধারাবাহিকতায় চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় গাড়ি চালকদের এবং মটরযান আইন নিয়ে আলোচনা করেন প্রধান অতিথি ট্রাফিক ইন্সপেক্টর শফিউল ইসলাম খান। প্রশিক্ষন কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন বিআরটিএ বগুড়ার মোটরযান পরিদর্শক প্রকৌশলী এস. এম সবুজ। এসময় তিনি বলেন, পেশাদার গাড়ি চালকদের এ প্রশিক্ষণ কর্মশালা চলমান থাকবে। পর্যায়ক্রমে সকল পেশাদার গাড়ী চালকদের এই প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। চালকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা একটানা ৮ ঘন্টার বেশি গাড়ি চালাবেন না। গাড়ি চালানোর পূর্বে জ্বালানি, মবিল, ব্রেক দেখে গাড়ি পরিচালনা করবেন। রাস্তায় ঘুম চোখে গাড়ি চালাবেন না, অধিক আত্মবিশ্বাস নিয়ে ওভার টেকিং করবেন না। ট্রাফিক আইন মেনে গাড়ি চালাবেন, অতিরিক্ত যাত্রী ও মালামাল বহন করিবেন না এবং গাড়ী চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করবেন না।
এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশেষ প্রশিক্ষক বিআরটিএ বগুড়া সার্কেল মেকানিক্যাল এ্যাসিসট্যার্ন্ট সেলিম হাসান, জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সড়ক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য ইউনুস আলী লয়া। এছাড়াও প্রশিক্ষন কর্মশালায় ২৫ বছর যাবৎ গাড়ী চালাচ্ছেন তথা কোন প্রকার সড়ক দূঘর্টনা সংঘটিত হয়নি এমন ৬জন ড্রাইভারকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয় বিআরটিএ বগুড়া সার্কেলের পক্ষ থেকে।