ফার্মেসিতে চাঁদাবাজির সময় নারীসহ আটক ৪

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ভুয়া ড্রাগ সুপারভাইজার পরিচয়ে বিভিন্ন ফার্মেসিতে চাঁদাবাজি করার সময় নারীসহ চারজনকে আটক করে পুলিশ দিয়েছে ব্যবসায়ীরা। রোববার (১০ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের আনন্দ বাজার থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- ভৈরব শহরের চন্ডিবেড় গ্রামের বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী হনুফা বেগম ওরফে পোশন, নরসিংদীর বেলাব থানাধীন লক্ষিপুর গ্রামের মৃত ইদ্রিস মিয়ার ছেলে ইউসুফ ভূঁইয়া, নরসিংদীর ভেলানগর এলাকার নিয়ত আলীর ছেলে রাজু মিয়া ও তাওয়াদী এলাকার মৃত হারিজ মিয়ার ছেলে তালাত মাহমুদ।

জানা গেছে, রোববার দুপুরে প্রেসের স্টিকার লাগানো একটি অটোরিকশায় ফরিদপুর ইউনিয়নের আনন্দ বাজারে যান তারা। পরে সেখানে কয়েকটি ওষুধের ফার্মেসিতে ড্রাগ সুপারভাইজার পরিচয়ে চাঁদাবাজি করে। এরপর সালুয়া বাজারের বিভিন্ন ফার্মেসিতেও চাঁদাবাজি করতে থাকে।

তাদের আচরণে সন্দেহ হলে বাজারের লোকজন ফার্মেসি মালিক সমিতিকে বিষয়টি অবহিত করেন। মালিক সমিতি তাৎক্ষণিক বিষয়টি জেলা ড্রাগ সুপারভাইজার নুরুল আলমকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি বলেন, আমাদের কোনো লোক ওই এলাকায় অভিযানে যায়নি। পরে তাদের আটক করে কুলিয়ারচর থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয় ব্যবসায়ীরা। জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী বলে জানায়।

পুলিশ জানায়, এর পূর্বে ও এই গ্রুপটি একই উপজেলার রামদী এলাকায় চাঁদাবাজি করতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয়।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ এ কে এম সুলতান মাহমুদ বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।