বেরোবিতে অবৈধভাবে শিক্ষক নিয়োগের প্রতিবাদে মানববন্ধন

ইভান চৌধুরী, বেরোবি প্রতিনিধি: বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) রসায়ন বিভাগ ও জেন্ডার অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সদ্য নিয়োগসহ সকল অবৈধ নিয়োগ বাতিল, মহামান্য আদালতের সকল রায় বাস্তবায়ন ও ঢাকাস্থ লিয়াজোঁ অফিস বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।
বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
অধিকার সুরক্ষা পরিষদের সদস্য সচিব খায়রুল কবীর সুমনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহ্বায়ক ড. মতিউর রহমান, শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ড. গাজী মাজহারুল আনোয়ার, ড. তুহিন ওয়াদুদ, রসায়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তারিকুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান, লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আসাদুজ্জামান মন্ডল আসাদসহ কর্মকর্তা ও কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ যোগদানের পর প্রশাসনিক ও একাডেমিক শৃঙ্খলা নষ্টসহ অতীতের সকল দুর্নীতির রেকর্ড ভঙ্গ করেছেন। তিনি দিনের-পর-দিন মাসের-পর-মাস ঢাকাস্থ লিয়াজোঁ অফিস থেকে বিতর্কিত কর্মকান্ড করে চলেছেন। দুর্নীতির হাওয়া ভবন গড়ে তুলেছেন এই লিয়াজোঁ অফিস। সম্প্রতি সম্পূর্ণ অবৈধভাবে রসায়ন বিভাগ ও জেন্ডার অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগে শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন তিনি। আমরা এই অবৈধ নিয়োগের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। যদি এই অবৈধ নিয়োগ বাতিল ও লিয়াজোঁ অফিস বন্ধ করা না হয়, তাহলে পরবর্তীতে আরো কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন বক্তারা।
বক্তারা আরো বলেন- উপাচার্যকে অনিয়ম ও দুর্নীতিসহ নানা বিতর্কিত কর্মকান্ডে সহযোগিতা করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষক-কর্মকর্তা। আমরা সেইসব শিক্ষক-কর্মকর্তাকে বলতে চাই, উপাচার্য এসেছেন চার বছরের জন্য। কিন্তু আপনাকে-আমাকে দীর্ঘদিন থাকতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়টি আমাদের, কোন উপাচার্যের নয়। আপনারা উপাচার্যকে সহযোগিতা বন্ধ করুন, যদি বন্ধ না করেন তাহলে এখন আমরা প্রতিবাদ জানাচ্ছি, কিন্তু আর প্রতিবাদ জানাবো না, এরপর থেকে আমরা প্রতিরোধ গড়ে তুলবো ইনশা-আল্লাহ।