খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে নড়াইলে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

বুধবার (১৭ ফ্রেরুয়ারি) বিকেলে নড়াইলের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদা এ পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্যের ঘটনায় ২০১৫ সালে জনৈক আশিক বিল্লাহর দায়ের করা মানহানির পৃথক মামলায় ওই আদেশ জারি করেন আদালত।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের একটি সমাবেশে বেগম খালেদা জিয়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করেন। অন্যদিকে, ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর এক দলীয় সভায় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

গণমাধ্যমে এ বিষয়ে অবগত হয়ে আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে ক্ষুব্ধ-মর্মাহত কালিয়া উপজেলার যাদবপুর গ্রামের শেখ আশিক বিল্লাহ বাদী হয়ে ওই বছরের ২৯ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে নড়াইল সদর আমলি আদালতে পৃথক মানহানির মামলা দায়ের করেন।

সেসময় আদালত নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মামলা দু’টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে আদালত চলতি সালের ১৮ জানুয়ারি সেটি পর্যালোচনা পূর্বক অভিযোগের সত্যতা পেয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন।

বুধবার মামলার ধার্য দিন আসামিরা হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন আদালত।