র‌্যাব-৯’র অভিযানে নকল স্বর্ণের বার বিক্রয়কারী চাঁর প্রতারক গ্রেফতার

সিলেট প্রতিনিধি :: সিলেটের প্রানকেন্দ্র কদমতলীর পূবালী ব্যাংকের সামনে বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯। এসময় তাদের কাছ থেকে নকল স্বর্ণের বার ২টি, প্রতারনায় ব্যবহৃত ১টি চিরকুট এবং ৩টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। তারা নকল স্বর্ণের বার বিক্রয়কারী প্রতারক চক্রের সদস্য। তারা দীর্ঘদিন থেকে অভিনবভাবে সাধারন মানুষের সাথে প্রতারনা করে আসছিল।
গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর থানার হাল্লাপাড়া গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে মো. রমজান আলী (৩৫), সুনামগঞ্জের বিশম্ভরপুর উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আলীর ছেলে মো. বাচ্চু মিয়া (৪৫), জগন্নাথপুর উপজেলার ঘোষগাঁও গ্রামের মৃত সোনাপর আলীর ছেলে আনার মিয়া (৪০) ও দোয়ারাবাজার উপজেলার নরাইসলামপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে আতিকুর রহমান (৪০)।
র‌্যাব জানায়- প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা তাদের নিজ নিজ কৃতকর্মের বিষয় স্বীকার করে। তারা সিলেট শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে সহজ-সরল পথচারীদের টার্গেটে পরিনত করে। সহজ-সরল পথচারীদেরকে; তাদের কাছে থাকা নিম্নুক্ত চিরকুটটি পড়তে দেয়- ‘রিপন বাবু স্বর্ণকার প্রথমে আমার নমস্কার নিবেন। আমি না আসতে পেরে বউটির কাছে পাঠিয়া দিলাম, বিদেশী ৩ ভরি ওজন স্বর্ণ। ইহা দিয়া গলার চেইন এক জোড়া, কানের জুমকো ও হাতের দুটি বালা সুন্দর করে বানিয়ে দিবেন। ইতি, আপনার বন্ধু গোপাল বাবু।’
তারা পথচারীদের বলে, ভাই (নকল স্বর্ণের বার চিরকুট মোড়ানো অবস্থায়) এটা রাস্তায় কুড়িয়ে পাইছি। আমরা মূর্খ মানুষ পড়তে জানিনা, এখানে কি লেখা আছে দেখেনতো। পথচারীরা চিরকুট পড়ে যখন তাদের শোনায় তখন তারা বলে- আপনি যদি কিনেন কম টাকায় বিক্রি করে দিব।
তাদের ফাঁদে পা দিয়ে সহজ-সরল মানুষ প্রতারিত হয়ে আসছে। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এই অভিনব কৌশলে প্রতারিত করে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে সংশি¬ষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারক সদস্যদের গ্রেফতার করার জন্য গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব।

সর্বশেষ সংবাদ