কাবুলে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ,ইমামসহ নিহত ১২

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে জুমার নামাজের সময় মসজিদের ভেতর বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছেন। ঈদ উপলক্ষে দেশটিতে চলা তিন দিনের যুদ্ধবিরতির দ্বিতীয় দিন শুক্রবারও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তালেবান বিদ্রোহীরা এক বিবৃতিতে এ হামলার নিন্দা জানিয়েছে। এখন পর্যন্ত এ হামলার দায় স্বীকার করেনি কেউ।

ঈদ উপলক্ষে তিন দিনের যুদ্ধবিরতির দ্বিতীয় দিনেও রক্তাক্ত আফগানিস্তান। ঈদের দিনে চারটি বোমা হামলায় ১১ জন প্রাণ হারানোর পর শুক্রবার আবারও হামলা চলে রাজধানী কাবুলে। জুমার নামাজের সময় মুসল্লিরা যখন ইবাদতে মগ্ন, তখনই হঠাৎ বোমা বিস্ফোরণ হয় একটি মসজিদে। ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান বেশ কয়েকজন আফগান যাদের মধ্যে ছিলেন ওই মসজিদের ইমামও।

যুদ্ধ বিরতিতে মসজিদে এ ধরনের হামলার নিন্দা জানিয়েছে খোদ দেশটির সন্ত্রাসী গোষ্ঠী তালেবান। হামলাটি কারা এবং কেন চালিয়েছে সে সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।

ঈদ উপলক্ষে আফগানিস্তানে বৃহস্পতিবার থেকে যুদ্ধবিরতি শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটির কোনো এলাকায় তালেবান-আফগান বাহিনী মুখোমুখি লড়াইয়ের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

আফগানিস্তান থেকে আগামী ৪ মাসের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র তাদের সব সেনা প্রত্যাহার করবে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে দেশটিতে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলাসহ সহিংসতা বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে। বৃহস্পতিবার দেশটির চারটি স্থানে হামলায় ১১ জন প্রাণ হারান। আর কয়েক দিন আগেই কাবুলের একটি বালিকা বিদ্যালয়ে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৮০ জন নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে বেশির ভাগই ছিল সংখ্যালঘু হাজারা শিয়া সম্প্রদায়ের স্কুলছাত্রী।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি ও রয়টার্স জানায়, গত মাসে যুক্তরাষ্ট্র ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তানে মোতায়েন সব সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পর হঠাৎ করেই দেশটিতে সহিংসতার মাত্রা ব্যাপক বৃদ্ধি পায়। তার মধ্যেই ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে তালেবান তিন দিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা দিলে আফগানিস্তানের সরকার তা মেনে নেয়। তার পর একের পর এক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে।

সর্বশেষ সংবাদ