গাবতলীতে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে বন্ধু খুন-২৪ ঘন্টার ব্যবধানে খুনি গ্রেফতার

গাবতলী(বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার গাবতলীতে পাওনা দুইশত টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে রড মিস্ত্রী বন্ধু জীবন মিয়ার ধারালো ছুরিকাঘাতে অপর বন্ধু রাজমিস্ত্রী লেবার আব্দুস সালাম খুন হয়েছে। এঘটনায় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে পুলিশ খুনি জীবন মিয়াকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ২১ মে দিবাগত রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার বালিয়াদীঘি ইউনিয়নের বরইতলী(বটতলী) গ্রামে। নিহত আব্দুস ছালাম (১৮) ওই গ্রামের মোঃ সাজু মিয়া প্রামানিক’র ছেলে। খুনি একই এলাকার নাংলা পাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে বলে জানা গেছে।
থানা ও এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায়, খুনি জীবন মিযার সাথে আব্দুস ছালাম একই সাথে প্রতিদিন কাজে যেত। এরমধ্য জীবন মিয়া আব্দুস ছালামের কাছ থেকে দুইশত টাকা ধার নেয়। এই টাকা দিতে জীবন মিয়া তাল বাহানা করায় ঘটনার দিন ২১ মে বিকেলে আব্দুস ছালাম তার মোবাইল কেড়ে নেয়। এনিয়ে ইভয়ের মধ্য উত্তেজনা সৃষ্টি হলে স্থানীয় স্কুল মাঠে বসে এলাকাবাসী উভয়কে সমঝোতা করেদেয়। মনে রাগ পুষে রাখা জীবন মিয়া একইদিন রাত সাড়ে ৮ টায় টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে আব্দুস ছালামকে স্কুল মাঠ থেকে ডেকে তার বাড়ির দিকে গলা ধরে গল্প করে আসার পথে পেটে ধারালো ছুরিকাঘাত করে। এতে আব্দুস ছালামের নারী ভুড়ি বেড়িয়ে গিয়ে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় উদ্ধার করে আঃ ছালামকে বগুড়া মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষনা করে। মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে জীবন মিয়া পলিয়ে আত্মগোপন করে। পরদিন ২২মে দুপুনের জীবন মিয়ার মা তার জন্য খাবার নিয়ে মাঠের মধ্য যাওয়ার পথে এলাকাবাসী তার গতিবিধি লক্ষ করে। নাংলা গ্রামের মাঠের মধ্য একটি বিলের ধারে ঘাষের জমির মধ্য লুকিয়ে থাকা জিবন মিয়াকে স্থানীয়রা আটক করে গাবতলী থানায় সংবাদ দেয়। গাবতলী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলামের নেতৃত্বে থানার এস আই শামিম, খালেকসহ অন্যান্য ফোর্স জীবন মিয়া (২২)কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। সেখানে সহকারি সিনিয়র পুলিশ সুপার গাবতলী সার্কেল ছাবিনা ইয়াসমিন তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এঘটনায় নিহত আব্দুস ছালামের পিতা মোঃ সাজিু মিয়া প্রামানিক বাদী হয়ে জীবন মিয়ার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত কয়েক জনের নামে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। এব্যপারে ওসি জিয়া লতিফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পাওয়া ২শত টাকার জন্য ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আব্দুস ছালাম নামের এক রাজমিস্ত্রি লেবার খুন হয়েছে। খুনি জীবন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নিহতের পিতাবাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দিয়েছে।