নন্দীগ্রামে অধ্যক্ষকে মারপিট ঘটনায় ৬ জনের নামে মামলা, গ্রেপ্তার ১

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার নন্দীগ্রামে মাদ্রাসার এডহক কমিটি নিয়ে বিরোধের জেরধরে অধ্যক্ষকে মারপিট ঘটনায় ৬ জনের নামে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। ২৬ মে থানায় মামলাটি দায়ের করেন উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের ইসলামপুর ভূস্কুর সিদ্দিকীয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোশাররফ হোসেন। জানা যায়, উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের ইসলামপুর ভূস্কুর সিদ্দিকীয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার এডহক কমিটির সভাপতি পদে তারেক হোসেন ও নাজমুস সায়াদাত প্রার্থী হন। ২ এপ্রিল সভাপতি ও পূর্ণাঙ্গ এডহক কমিটি অনুমোদনের জন্য মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে কাগজপত্র প্রেরণ করা হয়। সেখানে এডহক কমিটির সভাপতি পদে তারেক হোসেন ও নাজমুস সায়াদাতের নাম দেওয়া হয়েছিলো। ২৪ এপ্রিল মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড নাজমুস সায়াদাতকে সভাপতি করে পূর্ণাঙ্গ এডহক কমিটি অনুমোদন করে দেন। এতে তারেক হোসেন ও তার লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। এর একপর্যায়ে ২৬ মে বেলা আনুমানিক আড়াইটার সময় ভূস্কুর গ্রামে একটি মুদির দোকানের সামনে তারেক হোসেন ও তার ভাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল বাছেদ দলবল নিয়ে অধ্যক্ষ মোশাররফ হোসেনকে মারপিট করে। এ ঘটনার খবর পেয়ে থানার এসআই চাঁন মিয়া সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সেখানে গিয়ে আব্দুল বাছেদকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় অধ্যক্ষ মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে থানায় ৬ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করে। সেই মামলায় তারেক হোসেন, মুনির হোসেন, আব্দুল বাছেদ, বাদশা মিয়া, সাইফুল ইসলাম ও আব্দুল হালিমকে আসামী করা হয়েছে। ২৭ মে থানা পুলিশ গ্রেপ্তারকৃত আব্দুল বাছেদকে বগুড়া কোর্ট হাজতে প্রেরণ করে। থানার এসআই চাঁন মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন।