বগুড়ার চন্ডিহারা মিতু হোটেলের মহিলা বাবুর্চির গায়ে গরম তেল ঢেলে হত্যার চেষ্টা আটক-১

বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার চন্ডিহারা কোয়লীপাড়া রাস্তা সংলগ্ন মিতু হোটেলে পঁচা ও বাসি খাবার মিশিয়ে রান্না না করায় মহিলা বাবুর্চির গায়ে গরম তেল ঢেলে হত্যার চেষ্টা,থানায় অভিযোগ, আটক, ১, হোটেল মালিক পলাতক।
শিবগঞ্জ থানা ও বাদীর অভিযোগ সুত্রে জানা যায় যে, ০১/০৬/২০২১ইং সকাল ১০.০০ঘটিকায় সময় বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর ইউনিয়নের চন্ডিহারা কোয়লীপাড়া রাস্তা সংলগ্ন মিতু হোটেলে বাসী ও পঁচা খাবার মিশিয়ে রান্না না করায় হোটেল মালিকের সহযোগীতায় অন্য বাবুর্চি কর্তৃক মহিলা বাবুর্চির গায়ে গরম তেল ঢেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টা। ভুক্তভোগীর মেয়ে লাজনী বেগম জানান তার মা জোবেদা বেগম (৫৭) স্বামী জহুরুল মন্ডল, সাং মাত্রাই থানা- কালাই, জেলা- জয়পুরহাটকে । আমরা গরীব হওয়াই আমার মা এ এলাকায় বাসা বাড়ী সহ বিভিন্ন দোকান ও হোটেলে প্রায় ১৫/১৯ বছর ধরে কাজ করে আসছে। ২ নং বিবাদী চন্ডিহারা মিতু হোটেলের মালিক ফারুক হোসেন বাদীর মা মহিলা বাবুর্চিকে রাতে বেচে যাওয়া বাসি পঁচা খাবার মিশিয়ে সকালের খাবারের সাথে মিশিয়ে রান্না করতে বলে, এতে সে রাজি না হওয়াই হোটেল মালিকের সাথে কথার কটাকাটি হয়, এক পর্যায় হোটেল মালিক ফারুকের নিদের্শে অন্য বাবুর্চি কালু মিয়া পিতা- ছাবের আলী, গ্রাম- মাটিহাস, থানা-নন্দিগ্রাম, জেলা-বগুড়া, সুযোগ বুঝে কড়াইয়ের গরম তেল জোবেদার গায়ে ঢেলে দিলে শরীরের গোপন অঙ্গ ও পা সহ ডান পার্শ্বের অংশ পুরে যায়, তখন সে চিৎকার করে মাটিতে ঢলিয়ে পড়লে হোটেল মালিক উপস্থিত থাকা স্বত্ত্বেও কোন সারা না দিলে স্থানীয় লোকজন অটো ভ্যান যোগে প্রথমে শিবগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করে দেয়। পরে মহিলার অবস্থা গুরুতর হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে দেন। এখন সে বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে । এ বিষয়ে জোবেদার মেয়ে লাজনী বেগম বাদি হয়ে শিবগঞ্জ থানায় ১টি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের ভিত্তিতে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ এস আই বিরঙ্গ ও এ এস আই উজ্জ্বল হোসেন সংগীয় ফোর্স সহ কালু মিয়া(৩৫) কে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ২ ও ৩ নং বিবাদী পলাতক রয়েছে বলে জানা যায়।অভিযোগ পেয়ে আসামী দ্রুত আটক করায় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীর পরিবার এস আই বিরঙ্গ ও এ এস আই উজ্জলকে ধন্যবাদ জানান। হোটেল মালিকসহ অন্য আসামীকে আটক করতে পারলে ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন হবে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন।
এ বিষয়ে শিবগঞ্জ থানার দায়িত্ব প্রাপ্ত অফিসার এস আই বিরঙ্গের সাথে কথা বললে তিনি সাংবাদিকদের জানান অভিযোগের ভিত্তিতে ১ জনকে আটক করা হয়েছে অন্যদেরকেও আটক করা হবে। অপরাধী যেই হোক আমার কাছে তাদের ছাড় নেই।