বদলগাছীতে কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো বেশীর ভাগ সময় থাকে তালা বদ্ধ

আবু সাইদ বদলগাছী-নওগাঁর বদলগাছীতে ইউনিয়ন পর্যায়ে স্থাপিত কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো বেশীর ভাগ সময় থাকে তালা বদ্ধ যেন দেখার কেউ নেই। ফলে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হয়ে পড়েছে। জানা যায়, উপজেলার গ্রামাঞ্চলে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার লক্ষে সরকার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রা ছাড়াও ইউনিয়ন পযায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছে। কিন্ত প্রসাশনিক ভাবে তাদের উপর কোন তদারকি না থাকায় কমিউনিটি ক্লিনিক গুলোতে কর্মরত কমিউনিটি হেল্থ প্রোভাইডার (সিএইচসিপি) রা তাদের নিজের কাজ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ব্যস্থ থাকেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিক্লপনা অফিস সুত্রে জানা যায় , উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নে মোট ২৬ টি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। ক্লিনিক গুলো প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ৩ টা পযন্ত খোলা রেখে এলাকার জনসাধারণদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার কথা থাকলেও কেউ তা মানছেনা। গত ৬ ও ৭ জুন সরেজমিনে , উপজেলা বিলাশবাড়ী ইউনিয়নের শ্রীরামপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে বেলা ১১ টায় গিয়ে দেখা যায় তালা বদ্ধ। ওই ক্লিনিকে চিকিৎসা নিতে আশা বলরামপুর গ্রামের আনোয়ার,শ্রীরামপুর গ্রামের আহম্মদ আলী,জোসনা বেগুম,রাহেলা বেওয়া আপেক্ষমান রোগিরা বলেন, আমরা চিকিৎসা নিতে এসেছি সকাল ১০টায় এখনো ডাক্তার অফিস খোলেনি। উপস্থিত আরো কয়েক জন বলেন এখান কার সি এইচসিপি আলমগীর হোসেন জুয়েল শ্রীরামপুর বাজারের পার্শে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জনসেবা ফার্মেসিতে বেশী সময় দেন। এব্যপারে উক্ত ক্লিনিকের সি এইচসিপি মো,আলমগীর হোসেন বলেন আমি অফিস টাইম বাদে আমার প্রতিষ্ঠানে সময় দিয়ে থাকি। বিলাশবাড়ী ইউনিয়নের ভগবানপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে বেলা ১২টায় গিয়ে দেখা যায় তালা বদ্ধ, সেখানকার সি এইচসিপি আইনুল হক মোবাইল ফোনে বলেন আমি কিছু আগেই চলে এসেছি। আধাইপুর ইউপির কাশিয়ারা কমিউনিটি ক্লিনিকে দেখা যায় তালা বদ্ধ সেখানকার সি এইচসিপি বিউটি বানু বলেন আমি বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো এসেছি অফিসিয়াল কাজে। বদলগাছী উপজেলা সি এইচসিপির সভাপতি জহুরুল ইসলাম বলেন নিয়ম আছে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩ টা প্রযন্ত খোলা রাখতে হবে কিন্ত ১২টার পর কোন রোগি না আসায় আমরা বন্ধ করে বাড়ি আসি। স্থানীয় এলাকাবাসী বলেন ইউনিয়ন কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো বেশী ভাগ সময় বদ্ধ থাকে। নিয়মিত না খোলার কারনে সেবা নিতে আশা মানুষ ফিরে যেতে বাধ্য হয়।
এবিষয়ে বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডাক্তার কানিস ফারহানা বলেন সকাল ৯টা থেকে ৩টা প্রযন্ত কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো খোলা রাখার নিয়ম। কিন্তু যদি সিএইচসিপিরা বন্ধ রাখে তাহলে জরুরী ভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।