দেওপাড়া ইউপির লুটেরা চেয়ারম্যান আক্তারের অনিয়ম দূর্নীতির গোমর ফাঁস

সারোয়ার হোসেন,রাজশাহী : রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান আক্তারের বিরুদ্ধে উঠা চলমান করোনা কালে সরকারি অনুদানের অর্থ আত্মসাৎ সহ বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতির সরেজমিনে প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্মকর্তাদের কাছে তদন্ত দাবি জানিয়েছেন দেওপাড়া ইউপির জনসাধারণ গন। ইউপি পরিষদের বঞ্চিত অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে অভিযোগ উঠেছে, করোনা ভাইরাসের প্রথম ধাপ থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ বরাদ্দ গরীব অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে সঠিক ভাবে বন্টন না করে চেয়ারম্যান আক্তার তার ইচ্ছে মত অনুসারী আত্মীয় স্বজন ও বিত্তবানদের নামে তালিকা তৈরি করে ইউনিয়ন পরিষদের বরাদ্দ নয়ছয় করে বন্টন করা হয়েছে। যার ফলে,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া মানবিক সহায়তা থেকে বঞ্চিত হয়েছে ইউনিয়ন পরিষদের প্রকৃত অসহায় অতিদরিদ্র পরিবার গুলো। জানা গেছে, চেয়ারম্যান আক্তার করোনা কালে নিজে কোন ত্রান সামগ্রী বিতরণ না করে উল্টো সরকারি বরাদ্দ নয়ছয় করে নিজ আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে বন্টন করায় ইউপি পরিষদের প্রকৃত অসহায় দরিদ্র মানুষরা সরকারি অনুদান থেকে বঞ্চিত হওয়ায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেছেন ইউপি বাসী। এছাড়াও আক্তারুজ্জামান আক্তার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ইউনিয়ন বাসীর উন্নয়ন তো দুরের কথা দেওপাড়া ইউপির কোন স্কুল কলেজ মাদ্রাসা,মন্দিরে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগাতে পারেনি চেয়ারম্যান আক্তার। চলমান অনিয়ম দূর্নীতির বিষয়ে চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান আক্তারের সাথে কথা বলা হলে তিনি সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দল ক্ষমতায় থাকলে এরকম একাক টুক হতেই পারে এটা কোন ব্যাপার না সব ঠিক হয়ে যাবে বলে তিনি এড়িয়ে জান।