কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেওয়ার প্রস্তাব তুরস্কের

আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনী চলে যাওয়ার পর কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ও পরিচালনায় দায়িত্ব নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, তুর্কি সরকার এজন্য শর্তারোপ করছে। আগামী সপ্তাহে দুই দেশের শীর্ষ নেতার বৈঠকে বিষয়টি সমাধান হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স তুরস্কের কর্মকর্তারা জানান, মে মাসে ন্যাটোর বৈঠকে আঙ্কারা প্রস্তাবটি তুলে ধরে। ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন ও ন্যাটো সেনাদের প্রত্যাহার করা হবে। এক তুর্কি কর্মকর্তা জানান, তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা এই বিষয়ে সম্ভাব্য বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন। ওয়াশিংটন কিছু বিষয়ে সম্মত হয়েছে।

তার মতে, আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের পর তুরস্কের পক্ষ থেকে কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। ন্যাটো ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা চলছে। কাবুল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব পেলে পশ্চিমাদের সঙ্গে তুরস্কের সম্পর্কের উন্নতি ঘটতে পারে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কেনা এবং ভূমধ্যসাগরে তেল অনুসন্ধান নিয়ে বিরোধের পর থেকে ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে আঙ্কারার সম্পর্কে কিছুটা ফাটল দেখা দিয়েছে। সোমবার তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকার জানিয়েছেন, আঙ্কারার প্রস্তাবে মিত্রদের কাছ থেকে সহযোগিতা নেওয়ার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত আছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান, তারা তুরস্কের প্রস্তাবকে স্বাগত জানাচ্ছেন; কিন্তু এই কাজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে অনেক কিছু চাইছে আঙ্কারা। আগামী সোমবার ন্যাটোর নেতারা আফগানিস্তান ইস্যুতে আলোচনা করবেন।