দুপচাঁচিয়ায় সোনালী স্বপ্ন নিয়ে আমন চারা রোপনে ব্যস্ত কৃষক

গোলাম মুক্তাদির সবুজ, দুপচাঁচিয়া(বগুড়া-সোনালী স্বপ্ন নিয়ে আমনের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার কৃষকরা। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবার বীজতলার কোনো ক্ষতি হয়নি। শ্রাবণ মাসের বৃষ্টির পানি কাজে লাগিয়ে কৃষকরা রোপা আমন ধান রোপন করছেন। এবার বর্ষা মৌসুমে ভালো বৃষ্টিপাত হওয়ায় আবাদী জমিতে বাড়তি পানি সেচ দিতে হচ্ছে না। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে কৃষকরা দ্রুত আমনের চারা রোপন করছেন।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি রোপা আমন মৌসুমে দুপচাঁচিয়া উপজেলায় ১১হাজার ৮’শ হেক্টর জমিতে ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এজন্য ৬২০হেক্টর জমিতে বীজতলা প্রস্তুত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এ উপজেলায় কৃষকরা সাড়ে ৭হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করেছেন। এ উপজেলায় বেশিরভাগ জমিতে কৃষকরা রনজিত, বীনা-৭, বীনা-১৭, ব্রি-ধান-৪৯, ব্রি-ধান-৭১, ব্রি-ধান-৭৫, ব্রি-ধান-৮৭, ব্রি-ধান-৯০ চারা রোপন করেছেন।
উপজেলার কুশ্বহর গ্রামের কৃষক মুক্তার হোসেন বলেন, এ বছর ধানের দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকরা আমন চাষাবাদে আগ্রহ। আমনে ব্যয় কম হয় এবং ধানের ফলন ভালো হয়। আমাদের এলাকায় বেশিরভাগ জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করা হয়েছে। তবে কৃষি কাজে শ্রমিক না পাওয়ায় অনেকে এখন পর্যন্ত চারা রোপন করতে পারেননি।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাজেদুল আলম জানান, এ অঞ্চলে কৃষকরা আমন ধানের চারা রোপনের জন্য পুরোদমে কাজ শুরু করেছেন। আমন ধানের ব্যপক ফলনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কঠোর লকডাউনের মধ্যে কাজ করছি ও মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি।