দেশের সর্ববৃহৎ বিলুপ্ত ছিটমহল কুড়িগ্রামের দাসিয়ার ছড়ায় ৬ষ্ঠ বছর পূর্তি পালিত

সাইফুর রহমান শামীম কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : লকডাউনের কারণে দেশের সর্ববহৎ বিলুপ্ত ছিটমহল কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার দাসিয়ারছড়ায় সরকারিভাবে কোন কর্মসূচি না থাকলেও এখানে বসবাসরত বাসিন্দাগন স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৬ বছর পূর্তি উৎসব পালন করেছে। দিবসটি ঘিরে সম্বয়পাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ৩১জুলাই (রবিবার প্রথম প্রহর) রাত ১২টা ১মিনিটে আলোচনাসভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করে উৎসব করেন অধিবাসীরা। এসময় তারা ৬৮টি মোমবাতি ও ৬টি মশাল প্রজ্জ্বলন করে দিবসের সূচনা করেন। এসময় বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় কমিটির সাবেক সভাপতি মইনুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিনিময় সম্বয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, দাসিয়ার ছড়া শাখার সাবেক সভাপতি আলতাফ হোসেন, রফিকুল ইসলাম ও নুর ইসলাম প্রমুখ। এ সময় বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় সম্বয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা জানান, আমরা বিলুপ্ত ছিটবাসীরা দুই দেশের সরকারের আন্তরিকতায় মুক্তি পেয়েছি। আমরা এই দিনটিকে স্মরনীয় করে রাখতে প্রতি বছর এই দিনটিকে বিশেষ দিন হিসেবে পালন করব। এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বল্প পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালন করছি। এছাড়াও আরো দুটি মাদরাসাসহ কয়েকটি স্থানে অনুরুপ কর্মসূচি পালন করেন সাবেক এ ছিটের বাসিন্দাগণ। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই মধ্য রাতে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে মুজিব- ইন্দিরা চুক্তি’র বাস্তবায়ন করেন বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এই দিনে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ১১১টি ছিটমহল এবং ভারতের অভ্যন্তরে বাংলাদেশর ৫১ টি ছিটমহল দুই-দেশের মূল ভুখন্ড যুক্ত হয়। দীর্ঘ ৬৮ বছরের বঞ্চনার পর দু’দেশের ১৬২টি ছিটমহলের মানুষ বাংলাদেশ ও ভারতের নাগরিকত্ব লাভ করেন।