বগুড়ায় অভিনেত্রী সঞ্চিতা দত্ত ফ্যানদের নিয়ে আড্ডা দিলেন আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপে

সঞ্চিতা দত্ত একজন বাংলাদেশী অভিনেত্রী ও মডেল। ২০১৭ সালে তিনি মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় রানার্স আপ হয়ে দারুন সুনাম অর্জন করেন। নাটক, গানসহ নানা আয়োজন দিয়ে তিনি লাখ লাখ ভক্ত সৃষ্টি করেছেন। সম্প্রতি তিনি বগুড়া এসে তার ভক্তদের নিয়ে হঠাৎ করে আয়োজন করলেন এক দারুন আড্ডা।
শহরের দত্তবাড়ি এলাকায় বগুড়া ট্রেড সেন্টারে জুস এবং কফিসহ বিভিন্ন মনভোলানো তৃপ্তিদায়ক পানীয় নিয়ে সেজে উঠা আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপে বুধবার বসেছিল নানা বয়সিদের সেই জমজমাট আড্ডা। আড্ডার প্রাণ ছিলেন সঞ্চিতা দত্ত। আকবরিয়া হোটেলের আয়োজনে ও প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান হাসান আলী আলালের সার্বিক সহযোগিতায় এবং রুমানা আক্তার মেডোরা সার্বিক পরিচালনায় আড্ডা প্রাণচাঞ্চল্য হয়ে উঠে। এসময় উপস্থিত ছিলেন বগুড়ার পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লায়ন কবিরাজ তরুন কুমার চক্রবর্তী, আকবরিয়া লিমিটেডের পরিচালক রাজিব আহসান সিজার, ডিজিএম আমিনুল ইসলাম আখি, আলমগীল হোসেন, এজিমএম শামীম তালুকদার, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার দিপক কুন্ডু, এইচ আর ম্যানেজার আনোয়ারুল হক, সহকারি বাবুল ইউনুছ, ইমরান হোসেন, আখেনুর ইসলাম রাসেলসহ প্রমুখ।

সঞ্চিতা দত্ত এর অভিনয়ে গানে আড্ডায় উপস্থিত সকলেই মেতে উঠেন। মুগ্ধ হয়ে গান শোনেন। আর করতালিতে উৎসাহ প্রদান করেন। তরুণ- তরুণীরা নতুন করে প্রেরণা পেলেন আড্ডায়। মনের মাধুরীতে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেন সকলে। কি যে এক আনন্দের অনুভুতি হৃদয় স্পর্শ করেছে, যা না দেখলে উপলদ্ধি করা কঠিন। করোনায় ঘরে বসে বসে যেন বোর ফিলিং কেটে যাচ্ছে তাদের। মহামারি করোনাকালিন সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারুণ্যের আদরমাখা বুধবার সন্ধ্যায় জম্পেশ আড্ডায় মাতোয়ারা সকলেই। নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার, নিজেদের অনুভুতি প্রকাশ করার পাশাপাশি সঞ্চিতা দত্ত নিজ কণ্ঠে গাইলেন গান। সঙ্গিত শিল্পী দরদী কণ্ঠে গান গেয়ে আড্ডাস্থল আরো জমিয়ে দিলেন। আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপের উঠানে সঞ্চিতা দত্তের গানে গানে আড্ডার সকলেই আনন্দে নেচে উঠেন। এভাবে নানা আয়োজনে আর গানে কফির চুমুকে দারুন কেটে গেল তাদের সন্ধ্যারাত।
আড্ডার ফাঁকে কথা হয় আব্দুর রহমান নামের এক ব্যক্তির সাথে। তিনি জানান, আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ খুব সুন্দর করে সাজানো গোছানো ও পরিপাটি। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে সকলেই নিজনিজ ইচ্ছায় আড্ডায় অংশ নিয়েছেন। এখানে খুব যত্নের সাথে কফি পরিবেশন করা হচ্ছে। চা, জুসও রয়েছে বিশ^মানের। এখানকার পরিবেশন একদম নান্দনিক। প্রথমবারের মত এসেই মন জুড়িয়ে গেছে।
আবার জমবে আড্ডা আবারো মন মাতবে। আবারো মন মাতিয়ে ফড়িং পাখনায় সুন্দরের মিলাবে মনের ছোট বড় স্বপ্ন। স্বপ্ন থেকেই মানুষ সুন্দরের পথে হাঁটে। সুন্দরের দিকে ছুটে যায়। এমন সুন্দরের স্বপ্ন সাজিয়ে রেখেছে আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ। আড্ডায় উঠে এলো আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপের নানা আয়োজনের নানা কথা।
আকবরিয়া লিমিটেড সুত্রে জানা যায়, মনোরম পরিবেশে, নান্দনিক সাজে সাজানো হয়েছে আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ। নান্দনিক সব শো পিসের সঙ্গে ফুলের সমন্বয় গড়ে উঠেছে। প্রত্যেক ক্রেতা আর ভোক্তার কেবল মনে হবে বাগান বিলাসে বসে যেন পানীয় পান করছেন। নানা কারুকার্যে দর্শনার্থীরাও মুগ্ধ হয়ে যাচ্ছেন। আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ সপটি হরেক রকমের চা, জুস ও কফি প্রিয়দের সাথে মেলবন্ধন গড়ে তুলবে। শুধু ব্যবসা নয়, সাধারণ মানুষের মনের মত করে যেন সপটি গড়ে উঠেছে। যে কেউ তার পরিবার বা প্রিয় সঙ্গির সাথে বসে একটু যেন নিরিবিলিভাবে কফির কাপে চুমুক দিতে পারেন। পানীয় তৃষ্ণায় যেন মন ভরে উঠে ভোক্তার। পারিবারিক অবয়বে সেজে উঠেছে সপটি। সপটিতে থাকবে সাধ ও সাধ্যের মধ্যে স্বাদের খাবার।
আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ এ পাওযা যাচ্ছে, কোল্ড কফি, কোল্ড ম্যাকাসিনো, এ্যালমন্ড কফি, ক্যারামেল কফি, ভ্যানিলা কফি, ব্লাক কফি, কাপ্পাকসিনো কফি, ওয়াইপড কফি, ক্যারামেল ম্যাচিয়াটো কফি, ম্যাংগো স্মুথি জুস, পাইনোপেল জুস, আপেল জুস, ব্যানানা জুস, স্ট্রবরী জুস, লেমন মাইন্ট জুস, মালাসা মিল্ক টি, থাই মিল্ক টি, জিঞ্জার মিল্ক টি, হানি টি, গ্রীন টি, আইস টি, পিওর গ্রীন টি, তুলসী টি, ব্লাক টি, মাল্টা টি, লেমন গ্রাস টি।
মানবতার ফেরিওয়ালা আকবরিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান হাসান আলী আলাল জানান, আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ সপটি আধুনিকমানের। কোমল ও স্বাদের পানীয় পানের জন্য আলাদা একটি সপ যার নামকরণ করা হয়েছে আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপ। সাধারণ মানুষের হাতের নাগালে রাখতেই তাদের এই আয়োজন। বুধবার বাংলাদেশী অভিনেত্রী ও মডেল সঞ্চিতা দত্তকে পেয়ে কিছু ভক্তরা এসে মুগ্ধ হয়েই হঠাৎ করেই আড্ডায় মেতে উঠেন। তারা আকবরিয়া ড্যান্সিং কাপের আয়োজন দেখে অত্যান্ত খুশি হয়েছেন। আমাদের এমন আয়োজন করা হয়েছে, যেন যে কেউ খুব সহজে খূশি হয়ে যান। আজকাল মানুষকে খুশি করা খুব কঠিন। তবুও চেষ্টা চলছে।