নন্দীগ্রামে গভীর রাতে পুকুর দখলের চেষ্টা

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার নন্দীগ্রামে গভীর রাতে জোরপূর্বক পুকুর দখলের চেষ্টা করায় থানায় অভিযোগ হয়েছে। অভিযোগটি দায়ের করেন উপজেলার হাটলাল গ্রামের মৃত ময়েজ উদ্দিনের ছেলে মকবুল হোসেন। তাঁর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, হাটলাল মৌজার ৪৪ শতক পরিমাণ একটি পুকুরের ওয়ারিশ এবং অন্য অংশিদারের ক্রয়সূত্রে ভোগদখল করে আসছে। এদিকে সোমবার (৯ আগস্ট) দিবাগত গভীর রাতে হাটলাল গ্রামের মজিবর রহমান, রাব্বী হাসান শুভ, খাদেম আলী, আব্দুস সাত্তার, জান্নাত হোসেন, আজাহার আলী, মিলন হোসেন, সাদেক আলী, আরিফ হোসেন, শান্তি বেগম, জাহেরা বেগম, জাহানারা বেগম, রুস্তম আলী, এবাদত আলী এবং গোপাল চন্দ্রসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন লাঠি, হাসুয়া, হাতুড়ি ও লোহার রড নিয়ে পুকুরে অনাধিকার প্রবেশ করে জোরপূর্বক জাল নেমে দিয়ে মাছ ধরতে লাগে। তখন মকবুল হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন মাছ ধরতে বাধা প্রদান করলে বিবাদীগণ ক্ষিপ্ত হয়ে মারপিট করার জন্য উদ্যাত্ত হয়। একপর্যায়ে বিবাদীগণ তাঁর চাচী রমিছা বেগম ও চাচাতো ভাই গোলাম মোস্তফাকে এলোপাথারিভাবে মারপিট করে। উক্ত পুকুরে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় আড়াই লাখ টাকার মাছ ছিলো বলে তিনি দাবি করেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) মকবুল হোসেন বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করে। থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ অভিযোগটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসআই বিকাশ চক্রবর্তীকে নির্দেশনা দিয়েছে। মকবুল হোসেন জানিয়েছে, বিবাদীগণ পুকুরটি বিভিন্ন সময় নিজেদের দাবি করে জোরপূর্বক জবরদখল করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে এবং বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে থাকে। আমরা এর প্রতিকার চাই। এ জন্য থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।