কুড়িগ্রামের রায়গঞ্জে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে প্রশাসনের অভিযান, ড্রেজার ধ্বংস

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম।।কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নে ফুলকুমর নদে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধে অভিযান পরিচালনা করেছেন নাগেশ্বরী উপজেলা প্রশাসন। সোমবার(১৬ আগস্ট) দুপুরে সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হাসান সুমন এই অভিয়ান পরিচালনা করেন। স্থানীয়দের অভিযোগ, রায়গঞ্জ ইউনিয়নের কমপক্ষে ৮টি পয়েন্টে ফুলকুমর নদে অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বালুর ব্যবসা করছে একটি চক্র। এমন পরিস্থিতিতে সোমবার দুপুরে ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের হাজীরমোড় (দামালগ্রাম) হতে বিশেষ অভিযান শুরু করেন সহকারী কমিশনার ( ভুমি)। রাঙালীবসে (রায়গঞ্জ) এ অভিযান শেষ হয়। এতে মোট ৭ টি অবৈধ ড্রেজার এবং বিপুল পরিমান পাইপ ভেঙে ফেলা হয় বলে জানা গেছে। এব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল হাসান সুমন জানান, অভিযানে কোন ড্রেজার মালিককে পাওয়া যায়নি। তাই কাউকে জরিমানা করা সম্ভব হয়নি। কয়েকটি ড্রেজার ভেঙে দেওয়া হয়েছে। চারজন মালিকের নাম পাওয়া গিয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও অবৈধ বালু উত্তোলনে এলাকাবাসীকে সচেতন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। অভিযানের ব্যাপারে ফুলকুমর পাড়ের বাসিন্দা মোঃ জামাল উদ্দিন বলেন, আমার ঘরের সাথে মেশিন বসে বালু তুলছিলো। আমার ঘর ভেঙে যাওয়ার ভয় ছিল। আল্লাহ মনে হয় এই ওসিলায় রক্ষা করলো। রেল-নৌ, যোগাযোগ ও পরিবেশ উন্নয়ন গণকমিটির রায়গঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ বালু উত্তোলন ও বিক্রির বিরুদ্ধে আমাদের পরিষ্কার অবস্থান। আমরা বালুর গাড়ির সামনে রাস্তায় দাড়িয়েও প্রতিবাদ জানিয়েছি। কিন্তু প্রশাসন চাইলে যে প্রভাবশালীদের সব দৌড়াত্ম শেষ হয় তা আবার প্রমাণ হলো। প্রশাসনের এমন অভিযানকে আমরা সাধুবাদ ও স্বাগত জানাই।