বদলগাছীতে প্রতারণা মামলায় শিক্ষক সহ ৩ ভাই গ্রেফতার

আবু সাইদ বদলগাছী- নওগাঁর বদলগাছীতে সাবেক সেনা সদস্য আল-মামুন হোসেন এর দায়ের করা প্রতারণা মামলায় শিক্ষক সহ ৩ ভাইকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ।
থানা পুলিশ ও মামলা সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বিলাশবাড়ী ইউপির বারফালা গ্রামের জসিম উদ্দীনের এর ছেলে মুকতারুল হোসেন (৪০), শিক্ষক মোজাহারুল হোসেন (৩৭)ও তাদের বড় ভাই মজিদুল ইসলাম সহ আপন সহদর তিন ভাই পল্লী উন্নয়ন সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতির রেজিষ্ট্রেশন নিয়ে এলাকায় কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল। উক্ত সমবায় সমিতিতে উপজেলার নন্দাহার গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য আল-মামুন হোসেন ও তার স্ত্রীর নামে দুটি মাসিক সঞ্চয় আমানত খোলে। এর এক পর্যায় সমিতি তার কার্যক্রম গুটিয়ে নিলে আল-মামুন হোসেন তার দুটি আমানতের টাকা ফেরৎ চায়। তাকে টাকা ফেরৎ না দিয়ে সমিতির পরিচালক মুক্তারুল হোসেন বিভিন্ন টালবাহনা শুরু করে। অবশেষে সেনা সদস্য আল-মামুন হোসেনের জমাকৃত ১ লক্ষ ৫ হাজার ও তার স্ত্রী আছমা এর ৯০ হাজার টাকা সহ মোট ১ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকার দাবীতে ওই তিন ভাইয়ের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে প্রতারণা মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি গ্রহন পূর্বক বদলগাছী থানায় প্রেরণ করলে থানা পুলিশ গত ১৩ সেপ্টেম্বর মামলাটি রেকর্ড করে ওই দিনই উক্ত তিন ভাইকে গ্রেফতার করে জেলা হাজতে প্রেরণ করেন।

মামলার বাদী সাবেক সেনা সদস্য আল-মামুন হোসেন জানায়, ওই পরিমান সঞ্চয় আমানত বাদে ও তার এবং এলাকাবাসীর অনেক টাকা পাওনা রয়েছে। তিনি আরও জানায়, মামলার বিবাদী মুকতারুল হোসেন ও তার অপর দুই ভাই মিলে “পল্লী উন্নয়ন সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি ” এর নামে ও ব্যাক্তিগত ভাবে এলাকার বিভিন্ন সাধারণ মানুষের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা গ্রহন করে মাসিক লভাংশ চুক্তির ভিত্তিতে দাদন ব্যবসা করে আসছে।

বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ আতিকুল ইসমাম বলেন, প্রতারণা মামলায় আসামীদের গ্রেফতার পূর্বক আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।