তোমাদের সবাইকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলা গড়তে হবে-শফিক

স্টাফ রিপোর্টার:বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক বলেছেন, এসে শুনতে পারলাম এই কলেজের এইচ এসসি পরীক্ষার্থীদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশী মেয়ে। কথাটি শুনে একটি কবিতার লাইন মনেপড়ে গেল, ‘এ পৃথিবীর যা কিছু কল্যাণ কর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর’। সদরের এমন একটি অঞ্চলে এটি একটি উল্লেখযোগ্য দিক। আমাদের পরিবারের মা বাবারা তাদের মেয়েদেরকে শিক্ষা অর্জনের জন্য পাঠিয়েছেন সেটা ভালো দিক।তিনি বলেন, তোমাদের সবাইকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ^াসী হয়ে, অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলা গড়তে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। তোদের হাতেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নের চাবিকাঠি।আজকের যে বিদায় সেটা বিদায় নয়। এটি স্মৃতির মনিকোঠায় চিরদিন ভেষে থাকবে। আজকে যারা কলেজে একসাথে পড়ালেখা করছেন তাদের কাছেও দিনটি স্মরণিয় হয়ে থাকবে। আজকের বন্ধুরাই একদিন বড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাবে। অনেকেই ভালো চাকুরীর সাথে জড়িত হবে। অনেক দিন পরে দেখবে আজকের এই দিনটিই স্মৃতিতে নাড়া দিবে। পুরাতন সেই বন্ধুদের সাথে দেখাহলে এই দিনগুলি নিয়ে স্মৃতিচারণে মুখরিত থাকবে সবাই।তিনি আরো বলেন, সামনে যে পরীক্ষার জন্য আজকে তোমাদেরকে বিদায় দেয়া হচ্ছে সেই পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য ভালোভাবে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে হবে। কারন এই পরীক্ষার ফলাফলের উপর ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি নির্ভর করবে।তিনি আরো বলেন, করোনার প্রভাব এখনও যায়নি। করোনা থেকে নিজেকে সুস্থ্য রাখতে পরিবারকে ভালো নিরাপদ রাখতে আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। গতকাল শনিবার দুপুরে বগুড়া সদরের নুনগোলা ডিগ্রি কলেজের এইচ এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কথাগুলি বলেন।কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ সুলতান মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, সরকারি মজিবুর রহমান মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. বেলাল হোসেন, নুনগোলা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ নুরুল আলম, প্রভাষক সুজাউদ্দৌলা, অধ্যক্ষ জাফর আলমগীর, কলেজ পরিচালনা কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ কেবিএম মুসা, আজাহার আলী তালুকদার, জাহেদুর রহমান যাদু, সিরাজুল ইসলাম, জাহিদুর রহমান, প্রভাষক নাছির উদ্দিন, আজিজুর রহমান, পৌর আওয়ামীলীগ নেতা সুপান্থ মল্লিক প্রমূখ।