আমদানি কমের অজুহাতে বাড়লো পেয়াজের দাম

ছামিউল ইসলাম আরিফ, হিলি(দিনাজপুর) -আমদানি কমের অজুহাতে হিলি স্থরবন্দরের আড়ৎগুলোতে বেড়েছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেয়াজের দাম । দুই দিনের ব্যাবধানে পেয়াজের দাম বেড়েছে প্রতিকেজি প্রকার ভেদে ৪ থেকে ৬ টাকা । সপ্তাহের শুরুতে যে পেয়াজ বন্দরের আড়ৎগুলোতে বিক্রি হয়েছিলো ২০ থেকে ২৫ টাকা দরে ,এখন সে পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা দরে। হঠাৎ দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়ছে পাইকাররা ।

পেয়াজ আমদানিকারকরা জানান, দেশে পেয়াজের চাহিদা থাকায় তারা ভারত সহ বিভিন্ন দেশ থেকে পেয়াজ আমদানি শুরু করেন । প্রথম দিকে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেয়াজের দাম ভালো পেলেও হঠাৎ গত এক সপ্তাহ থেকে বন্দরে দেখা দেয় পাইকার সংকট । এতে বেশি দামে পেয়াজ আমদানি করে কম দামে বিক্রি করতে হয় তাদের । এতে লোকসানের মুখে পরে তারা । লোকসান হওয়ার কারনে পেয়াজের আমদানি কমিয়ে দিয়েছে তারা । এর ফলে বন্দরে বেড়েছে ভারতীয় পেয়াজের দাম ।
গতকাল বুধবার (২৪শে নভেম্বর)হিলি স্থরবন্দরে প্রতিকেজি পেয়াজ (ট্রাকসেল)হিসেবে প্রতিকেজি বিক্রি হয়েছে ইন্দ্রজাতের নতুন পেয়াজ ২৪ টাকা এবং পুরাতনটা ২৬ টাকা দরে ,সুলাপুর জাতের পেয়াজ ৩২ টাকা কেজিতে ।

এদিকে পেয়াজ কিনতে আসা সেলিম নামের এক পাইকার জানান, আমরা হিলি বন্দর থেকে প্রতিদিন দুই চার ট্রাক পেয়াজ কিনে থাকি । সেগুলো ঢাকা সিলেট সহ বিভিন্ন মোকামে পাঠায়। কিন্তু বন্দরে হঠাৎ করে পেয়াজের দামটা উঠা নামা করাই পিয়াজ কিনতে এসে বিপাকে পরতে হচ্ছে ।

বন্দরে কথা হয় পেয়াজ কিনতে আসা আরেক পাইকার মোজামের সাথে তিনি বলেন, হিলি বন্দরে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা আসে পেয়াজ কিনতে । আমরা তাদের পিয়াজ কিনে দেই ,কিন্তু গেলো কয়েকদিন থেকে বন্দরে পেয়াজের দাম বেশ উঠা নামা করছে তাতে পিয়াজ কিনতে সমস্যাই পরতে আমাদের । দামটা যদি নিয়ন্ত্রনে থাকতো তাহলে আমাদের সুবিধা হতো ।

হিলি কাষ্টমস সুত্রে জানাগেছে, চলতি সপ্তহের গেলো ৫ কর্মদিবসে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় ১০০ ট্রাকে ২হাজার ৯শ ৯ মেট্রিক টন পেয়াজ পেয়াজ আমদানি হয়েছে ।