কোটি কোটি টাকার প্রতারণা: বিমানবন্দরে আটকানো হলো জ্যাকলিনকে

আর্থিক প্রতারণার মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ থাকায় বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজকে এবার মুম্বাই বিমানবন্দরে আটকে দেওয়া হলো। নায়িকার নামে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) পক্ষ থেকে লুক আউট নোটিশ জারি করা হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, রোববার (৫ ডিসেম্বর) একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দুবাই যাচ্ছিলেন জ্যাকলিন। কিন্তু অভিনেত্রীর নামে লুক আউট নোটিশ জারি থাকায় মুম্বাই বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তাকে আটকে দেন। এবার তাকে দিল্লিতে নিয়ে জেরা করা হবে। জানা গেছে, ২০০ কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণার মামলায় সুকেশ চন্দ্রশেখর এবং অন্যান্য বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি। সংস্থাটির কর্মকর্তারা ইতোমধ্যেই এমন কিছু প্রমাণ পেয়েছেন, যা ইঙ্গিত করে ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন জ্যাকলিন। প্রতারণায় অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখর নাকি অভিনেত্রীকে টাকা পাঠিয়েছিলেন। সেই সংক্রান্ত লেনদেনের বেশ কিছু তথ্য ইডির কর্মকর্তাদের হাতে এসেছে। সুকেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে, এক ওষুধ সংস্থার সাবেক মালিক শিবেন্দ্র সিংহ এবং মালবেন্দ্র সিংহের পরিবারের সঙ্গে ২০০ কোটি টাকার প্রতারণা করেছিলেন সুকেশ এবং তার স্ত্রী লিনা পল। সেই মামলায় গ্রেপ্তার হন দম্পতি। গত অক্টোবরে ২০০ কোটি টাকার প্রতারণার মামলায় ইডির পক্ষ থেকে একাধিক বার জেরা করা হয় জ্যাকলিনকে। অভিযোগপত্রে ইডির দাবি, ৯ লাখ টাকার পার্সি বিড়াল, ৫২ রাখ টাকার একটি ঘোড়া— এ রকমই মোট ১০ কোটি টাকার উপহার পেয়েছিলেন জ্যাকলিন। উপহারদাতা, সেই সুকেশ। ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সুকেশের সঙ্গে জ্যাকলিনের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের একাধিক ছবি ফাঁস হয়েছে। একটি ছবিতে বাথরুমের ভেতর আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে সুকেশের গালে চুমু খেতে দেখা গেছে জ্যাকলিনকে।