বগুড়ায় গণটিকাদান কেন্দ্রে উপচে পড়া ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার:বগুড়ায় করোনার গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের চারমাথায় এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক। এ কর্মসূচিতে জন্মনিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয় পত্র ছাড়াই করোনার টিকা পাবেন।জেলার সকল ইউনিয়ন এবং পৌরসভার পাশাপাশি শহরের চারমাথা, চাষী বাজার, ঠনঠনিয়া, শহীদ টিটু মিলনায়তন চত্বর, দত্তবাড়ী, হাড্ডিপট্টি, মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসহ ভ্রাম্যমাণ টিমের মাধ্যমে এ টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। সবমিলিয়ে একদিনে জেলায় প্রায় দুই লক্ষাদিক মানুষকে টিকা দেয়া হবে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। এদিকে, বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সহযোগিতায় শহরের চারমাথা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে গণটিকাদান কর্মসূচির অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সামির হোসেন মিশুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী, রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালকের কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন, জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শফিউল আজম, বগুড়া পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম বাদশা, বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হামিদ মিটুল, স্থানীয় কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম এবং বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারী সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠু উপস্থিত ছিলেন।জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের তথ্যানুযায়ী, বগুড়ায় গেল বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকা প্রদান কর্মসূচি শুরু হয়। তখন থেকে গত শুক্রবার পর্যন্ত জেলায় ১ম ডোজ ২৪ লাখ ৮২ হাজার ৮২৭ জন, ২য় ডোজ ১৯ লাখ ৭০ হাজার ১৪৪জন এবং ৬৩ হাজার ১১২ জন বুস্টার ডোজের টিকা পেয়েছেন। জেলায় ২২ লাখ ৩১ হাজার ৬৯৯জন টিকা পেতে রেজিষ্ট্রেশন করেছেন।বগুড়ার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শফিউল আজম জানান, সরকারি কর্মসূচির অংশ হিসেবে সারাদেশের ন্যায় বগুড়াতেও করোনার গণটিকা প্রদান চলছে। আশা করছি একদিনে জেলার দুই লক্ষাধিক মানুষ এ টিকা পাবেন।

সর্বশেষ সংবাদ