রাজারহাট বটতলা বালিকা বিদ্যালয়ের জেএসসি রেজিস্ট্রেশন ফি বাণিজ্য

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম।। জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট ( জেএসসি) পরীক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন করাতে জনপ্রতি ছয়গুন অতিরিক্ত ফি আদায় করছে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার বটতলা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাময়িক বরখাস্তকৃত সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম সরকার। এ ব্যাপারে এক অভিভাবক ১০ মে রাজারহাট উপজেলা উপজেলা নির্বাহি অফিসার ( ইউএনও) বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে। শিক্ষা বোর্ডের নিয়ম অনুসারে শিক্ষার্থীপ্রতি রেজিস্ট্রেশন ফি ৭৪ টাকা । সেখানে আদায় করা হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত ‌। মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে দেখভাল করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও কর্মকর্তা থাকলেও দুর্নীতির বিষয়ে অজ্ঞাত কারণে তারা কিছুই বলেন না। অভিযোগ দিলেও তারা কার্যকর ব্যবস্থা নেন না। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেখা যায় জেএসসি পরীক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন ফি ধরা হয়েছে জনপ্রতি ৭৪ টাকা। বিলম্ব ফিসহ ১৩৫ টাকা। নির্ধারিত ওই ফির এক টাকাও বেশি নিতে পারবেনা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। সরেজমিনে গিয়ে অনুসন্ধান ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে বটতলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জেএসসি পরীক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন করাতে নেয়া হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা । নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উক্ত বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন রেজিস্ট্রেশন কার নামে যে বাড়তি টাকা নেয়া হচ্ছে তার প্রতিষ্ঠান ঘাড়ে চাপার যাবে না। কারণ এই বাড়তি এর এক টাকাও প্রতিষ্ঠান পাবেন না। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দুর্নীতি করছে তা নয়। বলতে হবে সাময়িক বরখাস্তকৃত সহকারি প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম সরকার দুর্নীতি করছেন। রেজিস্ট্রেশন, বিভিন্ন পরীক্ষা ,ফরম পূরণ ও ভর্তির নামে অতিরিক্ত যে অর্থ উঠানো হয় ভুয়া ভাউচার দেখে তা আব্দুর রহিম সরকার একা ভোগ করছেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাময়িক বরখাস্তকৃত সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম সরকারের বেপরোয়া দুর্নীতির দীর্ঘদিন দূরে থাকলেও শিক্ষা অফিস কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় বাধ্য হয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক জাকির হোসেন গত ১০ মে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন । এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষকের সঙ্গে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সর্বশেষ সংবাদ