১৫ দিনেও উদ্ধার হয়নি হাফেজ রাব্বী; গ্রেফতার হয়নি আসামী

জেলা প্রতিনিধি, লালমনিরহাট-লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সিঙ্গিমারী আলিমের ডাঙ্গা হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থী হাফেজ রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বী ১৫ দিন পার হলেও এখনো  উদ্ধার হয়নি। অপহরণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হলেও এখনো আসামীরা রয়েছেন ধরা ছোয়ার বাইরে। ফলে আতঙ্ক ও অনিশ্চয়তায় দিন কাটছে তার পরিবারের।

নিখোঁজ রাব্বীকে উদ্ধার ও তাকে অপহরণের সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবীতে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) সকালে মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় লোকজন। হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ গেটের সামনে লালমনিরহাট- বুড়িমারী মহা সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। হাফেজ রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বী সিঙ্গিমারী গ্রামের রশিদুল ইসলামের পুত্র। গত ৭ জুলাই ওই উপজেলার ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের সোহাগের বাজার এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় সে। তবে তার পরিবারের দাবী রাব্বীকে নিখোঁজের নাটক করে অপহরণ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ওই মাদ্রাসার দুই জন শিক্ষক রবিউল ইসলাম ও রিয়াজুল ইসলামের মাধ্যমে ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের সোহাগের বাজার এলাকায় তাবলীগ জামাতে যায় হাফেজ রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বী। ৭ জুলাই রাব্বীর পরিবারকে জানানো হয় তিস্তা নদীতে গোসল করতে গিয়ে রাব্বী নিখোঁজ হয়েছে। এ ঘটনায় ওই দিন রাব্বীর পরিবার স্থানীয় থানায় একটি নিখোঁজের জিডিও করেন।

কিন্তু পরে তার পরিবার জানতে পায়, নিখোঁজের নাটক করে হাফেজ রাব্বীকে অপহরন করেন তার মাদ্রাসার দুই শিক্ষক রবিউল ইসলাম ও রিয়াজুল ইসলাম। এ ঘটনায় ১৭ জুলাই বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালত-৪ লালমনিরহাটে মামলা দায়ের করে রাব্বীর বাবা রশিদুল ইসলাম। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আসামীদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিলেও এখন পর্যন্ত আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

মামলার বাদীর অভিযোগ, আসামীরা প্রকাশ্য ঘুরে বেড়াছে এবং উল্টো বাদীকে হুমকিও দিচ্ছে। ফলে স্থানীয় লোকজন মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে করেন।

হাতীবান্ধা থানার ওসি শাহ আলম জানান, আদালতের আদেশে অভিযোগটি নতিভুক্ত করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।