পরকীয়া প্রেমিকের পরিবারের পিটুনিতে নারী নিহত,গ্রেপ্তার দুই

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বিয়ের দাবিতে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেয়া রোকসানা বেগমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে র্যাব-১১। শুক্রবার (২২ জুলাই) রাতে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার ভবেরচর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- মনির হোসেন ও আমির হোসেন। দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত র্যাব-১১ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র্যাব-১১ অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা। তিনি জানান, গত ১৮ জুলাই সোনারগাঁয়ের সাদিরপুর ইউনিয়নের বাইশটেকী দেওয়ান বাড়ীতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়া এক সন্তানের জননী রোকসানা বেগমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই এনামুল হক বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। জানা যায়, জীবিকার জন্য জামদানি শাড়ী তৈরির কাজ করতেন রোকসানা। সেই সুবাদে মনিরের সঙ্গে রোকসানার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে বিয়ের জন্য তাকে চাপ দিলে মনির গড়িমসি শুরু করেন। পরে বিয়ের দাবিতে মনিরের বাড়িতে অবস্থান নেন রোকসানা। এসময় মনিরের স্বজনরা একাধিকবার তাকে বাড়ির বাইরে টেনেহিঁচড়ে বের করে দেন। পরে মনির ও তার স্ত্রীসহ অন্যান্যরা লোহার পাইপ ও লাঠিসোটা দিয়ে তাকে পিটিয়ে আহত করেন। আশেপাশের লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ হত্যার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে র্যাব।