শেখ হাসিনাকে যত আসন দিবেন, বগুড়ার ততো উন্নয়ন হবে-সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার:সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে.এম খালিদ, এমপি বলেছেন, দেশে সকল মৌলবাদীদের রুখতে হবে। কোথাও কোন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করতে অনুমতির প্রয়োজন নেই। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের চিঠি দেয়া হয়েছে। সংস্কৃতি বাঁচাতে কারও সাথে কোন ধরণের আপোষ নেই। যারা বাঁধা দিতে আসবে তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে জবাব দিতে হবে। শুক্রবার রাত ৮টায় শহীদ টিটু মিলনায়তনে বগুড়া জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বগুড়ার উন্নয়নের রুপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আছেন বলেই দেশে সকল কর্মকান্ড হচ্ছে। শেখ হাসিনাকে যত আসন দিবেন ততো বগুড়ার উন্নয়ন হবে। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সংস্কৃতি কর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে। একমাত্র সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি এবং জঙ্গীবাদ রুখে দেয়া সম্ভব।বগুড়া জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তৌফিক হাসান ময়নার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুর রশিদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, দৈনিক করতোয়ার সম্পাদক মোজাম্মেল হক লালু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন। অভিষেক অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট বগুড়ার সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সিদ্দিকী।অভিষেক অনুষ্ঠানে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট নবনির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দকে শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধান অতিথি সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি।সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিকে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক। অভিষেক অনুষ্ঠানের আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপভোগ করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ সহ অতিথিরা।