প্রবীন রাজনীতিবিদ,বীর মুক্তিযোদ্ধা দুলুর মৃত্যুতে সংগ্রামী স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শোকসভা

বগুড়া-ভাষা সৈনিক, প্রবীন রজনীতিবিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহফুজুল হক দুলু গত: ৩০ মে’২০২২ তারিখে মৃত্যুবরণ করেছেন। তার এই প্রয়ানে সংগামী স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বাম গণতান্ত্রিক জোট বগুড়া জেলা শাখার উদ্যোগে আজ: ২৫ জুলাই’ ২০২২ বিকাল: ৩:৩০টায় জেলা পরিষদ মিলনায়তনে “নাগরিক শোকসভা” অনুষ্ঠিত হয়। শোকসভার শুরুতে কমরেড মাহফুজুল হক দুলুর প্রতিকৃতিতে পুস্পুমাল্য অর্পন ও এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন বাম গণতান্ত্রিক জোট বগুড়া জেলা সমন্বয়ক, সিপিবি বগুড়া জেলা সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা কমরেড জিন্নাতুল ইস্যলাম জিন্নাহ্। সভা সঞ্চালনা করেন বাসদ বগুড়া জেলা সদস্য সচিব কমরেড অ্যাড. দিলরুবা নূরী। শোক সভায় বক্তব্য রাখেন সিপিবি কেন্দ্রীয় সাবেক সভাপতি, ন্যাপ-কউিনিষ্টপার্টি-ছাত্র ইউনিয়ন বিশেষ গেরিলাবাহিনীর কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা কমরেড মঞ্জুরুল আহসান খান, বগুড়া জেলা পরিষদ প্রশাসক ডা: মকবুলল হোসেন, জাসদ বগুড়া জেলা সভাপতি রেজাউল করিম তানসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বগুড়া জেলা সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহাসান রিপু, বাসদ বগুড়া জেলা আহŸায়ক কমরেড অ্যাড. সাইফুল ইসলাম পল্টু, সিপিবি বগুড়া জেলা সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা হাফিজ আহম্মেদ, সিপিবি বগুড়া জেলা সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ফিজু, ফকির উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ তাহমিনা হায়দার, সিপিবি বগুড়া জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আমিনুল ফরিদ, সম্মিলিত সংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তৌফিক হাসান ময়না, গণসংহতি আন্দোলন বগুড়া জেলা সমন্বয়ক আব্দুর রশিদ, ন্যাপ (মোজাফ্ফর) জেলা সভাপতি আমিনুর রহমান টিপু, বাসদ বগুড়া জেলা সাবেক সদস্যসচিব সাইফুজ্জামান টুটুন, জেলা সদস্য মাসুদ পারভেজ, উদীচী বগুড়াজেলা সহ-সভাপতি সন্তোষ কুমার পাল, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র বগুড়া জেলা সংগঠক রাধা রানী বর্মন, বাংলাদেশের সাম্যবাদী আন্দোলনের জেলা নেতা অমিনুল ইসলাম, সংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মীর্জা অহসানুল হক দুলাল, ডা.শরিফুর রশিদ দিপু ,পরিবারের সদস্য আমিনুল ইসলামসহ বগুড়ার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ।

শোক সভায় বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ বলেন: কমরেড মাহফুজুল হক দুলু আজীবন একজন অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ ছিলেন। তিনি কিশোর বয়সেই পাকিস্থান আমলেই একটি শোষণ বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে যুক্ত হন এবং জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সেই সংগ্রমে যুক্ত থেকেছেন নির্মহভাবে। এরইমধ্যে তিনি ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধেসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেছেন। তিনি তার জীবনের শেষ দিকে প্রায় একক উদ্যোগে বগুড়া প্রধান শহীদ মিনার খোকন পার্কে পুরাতন শহীদ মিনারের আদলে উন্নত স্থাপত্য শৈলির শহীদ মিনার নির্মানের জন্য বহুবার অনশন করেছেন। তার এই সংগ্রামী স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাজানান মানে তার সংগ্রমী এই জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে আগমীদিনে তার অপূরীত কাজকে এগিয়ে নেওয়া তাই নেতৃবৃন্দ তোর শোকসভা থেকে আগামীদিনে শহীদ মিনার নিমার্ণের আন্দোলন ও শ্রেণীহীন-শোষনহীন সমাজ নির্মণের লড়াইয়ে আমৃত্য সামিল থেকেছেন। তিনি গুণ মানুষের মুক্তির আন্দোলনেই বেঁচে থাকবেন।