শিবগঞ্জে টানা বর্ষনে জমি চাষ ব্যস্ত কৃষকরা

সাজু মিয়া শিবগঞ্জ বগুড়াঃ আষাঢ় মাস অতিবাহিত হয়ে শ্রাবন মাস চলছে, আকাশের কোন বৃষ্টি না হওয়ার শিবগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছিলো।

গত শনিবার থেকে শুরু হওয়া টানা বর্ষনে এ উপজেলার কৃষকরা আমন চাষিরা ধানের জমিতে চাষে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা ১২টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত। এ উপজেলাকে শস্য ভান্ডার বলা হয়।

কৃষি অধিদপ্তরের তথ্য মতে, এ উপজেলায় আমন ধান চাষের লক্ষমাত্রা সাড়ে ১৮ হাজার হেক্টর জমি।

বর্ষা মৌসুমে তীব্র রোদ ও প্রচন্ড তাপ দাহের কারণে সঠিক সময়ে জমি তৈরী করতে পারছিলোনা এ অঞ্চলের কৃষকেরা। এমনকি প্রচন্ড তাপদাহে জমি ফেটে চৌচির হয়ে গেয়েছিলো।

অনেক কৃষকরা কোন উপায় না পেয়ে শুকনা জমিতে চাষ দেয়া শুরু করেছিলো।

গত শনিবার থেকে টানা বর্ষনে এ উপজেলার কৃষকরা আমন ধানের চারা রোপন করার জন্য জমিতে চাষদিতে ব্যস্ত সময় পার করছে। কাক ডাক ভোর থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত তারা মাঠে কাজ করছে।

মঙ্গলবার সরেজমিনে পৌর এলাকার দহিলা মাঠে গিয়ে দেখা গেছে কৃষক রবিউল, ওসমান গণি, আলেক কুদ্দুস অনেককে জমিত ধানের চারা লাগানোর উপযোগী করতে চাষ দিতে দেখা যায়।

কৃষক রবিউল ইসলাম বলেন, বর্ষা মৌসুমী বৃষ্টি না হওয়ায় চিন্তিত ছিলাম। আল্লাহ বড় মেহেরবান তিনি বৃষ্টি দিয়েছেন বলেই আজ আমি সহ এ অনেকেই জমিতে চাষ দিতে পারছি। কিছুদিন পূর্বে আমাদের জমিতে ধূলিকনা উড়লেও বর্তমানে কাঁদা হচ্ছে।

পাওয়ার টিলার চালক আলমগীর হোসেন জানান, কিছুদিন আগে জমিতে পানি না থাকায় শুকনাতে চাষদিতে হয়েছে। কয়েকদিন যাবৎ পানি হওয়ায় বর্তমানে জমিতে পানি জমায় জমিতে চাষ দিয়ে কাঁদা করছি। এখন রাত-দিন চাষ দিতে হচ্ছে কোন দম ফেলানোর সময় টুকুও নেই।

এব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আল মুজাহিদ সরকার বলেন, সময় মত বৃষ্টি না হওয়ায় ধানের চারা রোপন করতে ৮/১০ পেরিয়ে গেছে। তবে কয়েক দিন বৃষ্টি হওয়ায় কৃষকরা জমিতে চাষ দিয়ে ধানের চারা রোপন করছে। তবে আগে বপনকৃত ধানারে চারা রোপন করলে ফলন কিছুটা কম হওয়ায় আশংকা রয়েছে। বর্তমানে বৃষ্টি হচ্ছে কৃষকরা ধানের চারা রোপন করার জন্য জমিতে চাষদিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।