বাসের ধাক্কায় ইস্ট ওয়েস্টের ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু: চালক গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় জড়িত বাসচালক শহিদুল ইসলামকে (৪২) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-১১) সদস্যরা। শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান র্যাব ১১- এর উপ-অধিনায়ক মেজর সানরিয়া চৌধুরী। এর আগে, শুক্রবার (২৯ জুলাই) দিনগত রাতে শহিদুলকে ফেনী সদরের মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র্যাব। গ্রেফতার শহিদুল চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইস থানার হাসানদণ্ডি উত্তরপাড়া এলাকার ইমাম হোসেনের ছেলে। র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি দুর্ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছেন। প্রসঙ্গত, ১৫ জুলাই রাজধানীর ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ১০-১২ জন শিক্ষার্থী দু’টি প্রাইভেটকারে করে নারায়ণগঞ্জ পানাম সিটিতে আনন্দ ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে সোনারগাঁ থানাধীন দড়িকান্দি এলাকায় তাদের বহন করা একটি প্রাইভেটকারকে সায়েদাবাদগামী সৌদিয়া পরিবহন ধাক্কা দেয়। বাসের চালক দ্রুত ও বেপরোয়া গতিতে বাস চালিয়ে সজোরে ধাক্কা দিলে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং প্রাইভেটকারে থাকা পাঁচজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হন। আহতদের প্রথমে আল বারাকা হাসপাতালে (মদনপুর এলাকা) প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠান। আহতদের মধ্যে মোছা. সুমাইয়া রহমান মাহিমা (২২) ঢামেকে এবং ইব্রাহীম মাহমুদ রাহাত (২৭) শ্যামলী হার্ট স্পেশালিস্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় কাঁচপুর হাইওয়ে থানা কর্তৃক নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানায় সড়ক ও পরিবহন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। সে মামলায় জড়িত বাস চালক শহিদুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে।